১০ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষে কাজ চলছে

প্রকাশিতঃ মার্চ ১৮, ২০১৬ আপডেটঃ ৪:২৪ অপরাহ্ন

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, প্রতিবছর দেশের ৫০ হাজার তরুণ-তরুণীকে আইটি ট্রেনিং দেওয়া হচ্ছে। ২০২১ সালের মধ্যে আইসিটি সেক্টরে ১০ লাখ তরুণ-তরুণীর  কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষে কাজ চলছে। শুক্রবার ঢাকার কারওয়ান বাজারে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) মিলনায়তনে দেশের প্রযুক্তি সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে দেওয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

‘ইয়াং গ্লোবাল লিডার ২০১৬’ নির্বাচিত হওয়ায় প্রতিমন্ত্রী পলককে যৌথভাবে সংবর্ধনা দেয় বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস), বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস), ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কলসেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্য)।

প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম প্রদত্ত এই স্বীকৃতিতে আমি সম্মানিত। এর মাধ্যমে বৈচিত্র্যপূর্ণ বৈশ্বিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে আরও বিস্তৃতভাবে কাজ করার সুযোগ তৈরি হলো।

তিনি বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় একটি উন্নত ও বাসযোগ্য পৃথিবী গড়ে তুলতে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে এবং এই প্লাটফর্মের বিশাল সুযোগ কাজে লাগিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে আমি অগ্রগামী ভূমিকা পালন করতে চাই।

১৬ মার্চ ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম জুনায়েদ আহমেদ পলকসহ ৪০ বছরের কম বয়সী বিশ্বের অন্যান্য যুব বিশ্ব নেতাদের নামে একটি তালিকা ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে। সেখানে ফোরামের সাউথ এশিয়া রিজিয়নের নেতা হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন পলক।

সুইজারল্যান্ডভিত্তিক এই থিংক ট্যাংক প্রতিষ্ঠানটি প্রতি বছর সারাবিশ্ব থেকে নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে প্রতিভা ছড়ানো ৪০ বছরের কম বয়সী ব্যক্তিদের এ সম্মাননা দিয়ে থাকে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বেসিসের সভাপতি শামীম আহসান, বিসিএস মহাসচিব নজরুল ইসলাম মিলন, আইএসপিএবি মহাসচিব ইমদাদুল হক, বাক্য সভাপতি আহমদুল হক ববি ও বিডাব্লিউআইটি সহ সভাপতি সোনিয়া বশির প্রমুখ।

প্রযুক্তি ডেস্ক