সৌদিতে প্রবাসীদের উপর কঠোরতার খড়গ নেমেছে

প্রকাশিতঃ ফেব্রুয়ারী ২২, ২০১৮ আপডেটঃ ৩:০৬ অপরাহ্ন

সৌদি আরবে অবস্থানরত প্রবাসীদের উপর যেন কঠোরতার খড়গ নেমেছে। নতুন করে ইকামাতেও বকেয়া ফি আরোপ করেছে দেশটির সরকার। আর এর ফলে যেন অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার যুদ্ধে নেমেছে অনেক প্রবাসী।২০১৭ সালে সৌদি সরকার প্রবাসীদের ইকামা নবায়নের যে ঘোষণা দিয়েছিলো।

নতুন বছরে সেই ঘোষণায় যোগ করলেন ইকামায় বকেয়া ফি। অর্থাৎ যেসব প্রবাসী নভেম্বর ও ডিসেম্বরে ইকামা নবায়ন করেছিলেন তারা হয়ত অনেকে ভেবেছিলেন নতুন বছরে ২০১৭ সালের আর কোন বকেয়া বিল দিতে হবে না। কিন্তু না।

সৌদির শ্রম মন্ত্রণালয় থেকে ইতোমধ্যে সে বিলে স্পষ্ট করে কর্মরত শ্রমিকদের ইকামার নাম এবং নাম্বার দিয়ে তাদের বকেয়া বিলের হিসেব সংশ্লিষ্ট কোম্পানির কাছে পৌছে দেওয়া হয়েছে। প্রবাসীদের উপর ইকামা নবায়ন ফি পূর্বে ২৪০০ রিয়ালের সঙ্গে নতুন বছর থেকে যোগ হয়েছে আরো ২৪০০ রিয়াল ।

আরও খবর : সপ্তাহে দুটো দিন বাংলা পড়ানোর দাবি

যেসব কোম্পানি বা মোয়াচ্ছাছাতে ৫০% এর কম সৌদি কর্মরত তাদের প্রত্যেক শ্রমিকের ইকামা নবায়নে বর্ধিত ফি ধার্য হয়েছে ৪৮০০ রিয়াল । ৫০% বা তার অধিক সৌদি কর্মরত আছেন এমন প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য এই ধার্যকৃত ফি ৩৬০০ রিয়াল । এমন ঘোষণা আসায় নানারকম সংশয়ের পড়েছে প্রবাসী শ্রমিকরা। বিশেষ করে বাংলাদেশি যেসব ব্যবসায়ীরা স্পন্সর নিয়ে সৌদিতে ব্যবসা করছেন তারা এই বিপদে অনেকেই ব্যবসা বন্ধ করে দেওয়ার চিন্তা করছেন।

সৌদি আরবের তাবুক শহরের ফার্নিচার ব্যবসায়ী এস এম ইয়াকুব আলীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, এ ধরণের বিধি আরোপে আমরা যারা প্রবাসী আছি তাদের বিপদের শেষ নেই। কারণ সৌদি সরকারের নতুন নতুন ফি নির্ধারণের ফলে অনেক প্রবাসী ব্যবসায়ী তাদের প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেশে চলে যাচ্ছে।

কারণ পরোক্ষভাবে এই এই বিধি আরোপ একদিকে যেমন সৌদি আরবের লক্ষ্য পূরণ হচ্ছে, অন্যদিকে প্রবাসীরা তাদের দেশ থেকে নিজ দেশে ফিরে যাচ্ছে। তবে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে যারা ফ্রি ভিসা নিয়ে সৌদিতে প্রবেশ করেছেন।

এসএইচ-১৩/২২/০২ (প্রবাস ডেস্ক)