জরিমানা ছাড়াই দেশে ফিরছেন ১৯৮ বাংলাদেশি

প্রকাশিতঃ জুন ১১, ২০১৮ আপডেটঃ ৩:৫৯ পূর্বাহ্ন

লেবাননে যেসব প্রবাসী বাংলাদেশি বৈধভাবে প্রবেশ করেও নানানবিধ সমস্যার কারণে অবৈধ হয়ে বাংলাদেশে ফেরার জন্য বৈরুতে বাংলাদেশ দূতাবাসে স্বেচ্ছায় নাম লিখিয়েছেন, তাঁদের মধ্যে ১৯৮ জন প্রবাসী বাংলাদেশিকে কোনো প্রকার জরিমানা ছাড়াই দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করছে বাংলাদেশ দূতাবাস। ৮ জুন তাঁদের হাতে বিমানের টিকেট তুলে দিয়েছেন বৈরুতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

১১, ১২, ১৩ জুন তাঁদেরকে পর্যায়ক্রমে কাতার এয়ারলাইন্সযোগে বাংলাদেশে পাঠানো হবে। এরমধ্যে ১৭ জন অসুস্থ প্রবাসী রয়েছেন। অবৈধ প্রবাসী বাংলাদেশিরা দূতাবাসের সাহায্যে ঈদের আগে দেশে ফিরতে পেরে খুবই আনন্দিত।

আরও খবর : পাসপোর্ট জটে বেকাদায় বাংলাদেশিরা!

২০১৫ সালে রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব বৈরুত দূতাবাসে যোগদানের পরই প্রবাসী বাংলাদেশিদের সংগে মতবিনিময় সভা শুরু করেন। প্রতিটি মতবিনিময় সভায় ইকামাবিহীন অবৈধ প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রধান দাবি ছিলো- তাঁদেরকে যেন জরিমানা ছাড়া দূতাবাসের সাহায্যে বাংলাদেশে পাঠানো হয়।

এর মধ্যে অনেক প্রবাসী বাংলাদেশি আছেন, যারা পাঁচ-ছয় বছর ধরে অবৈধভাবে লেবাননে আছেন। তাঁদের প্রত্যেকের নামেই ইমিগ্রেশন অফিসে বিভিন্ন অভিযোগে মামলাও রয়েছে। যে কারণে তাঁরা দেশে ফিরতে চাইলেও নানান আইনি জটিলতায় ফিরতে পারছিলেন না।

এর পরই অবৈধ প্রবাসীদের দেশে পাঠানোর জন্য রাষ্ট্রদূত লেবানন সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে যোগাযোগ শুরু করেন। যার প্রেক্ষিতে ২০১৬ সালে বৈরুতে বাংলাদেশ দূতাবাস সকল অবৈধ প্রবাসীকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দূতাবাসে নাম লিপিবদ্ধ করার জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

এ পর্যন্ত প্রায় ৪,২০০ অবৈধ বাংলাদেশি দূতাবাসে নাম নিবন্ধন করেছেন। এরমধ্যে ৩,৯০০ বাংলাদেশি জরিমানা ছাড়া শুধু বিমান টিকেটের টাকা পরিশোধ করে দেশে ফিরতে পেরেছেন।

প্রতি মাসেই ইমিগ্রেশন বিভাগ দুই-তিনশ’ প্রবাসীকে ধাপে ধাপে দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করছে বলে জানায় বৈরুত দূতাবাস। এদের মধ্যে অনেক প্রবাসী রয়েছেন, যারা দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। দূতাবাসে নিবন্ধিত বাকি ৩০০ বাংলাদেশিকে ইমিগ্রেশনের আইনি জটিলতা শেষে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই দেশে প্রেরণ করা হবে বলেও জানিয়েছেন রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব।

এসএইচ-০৬/১১/০৬ (প্রবাস ডেস্ক, তথ্যসূত্র : ভয়েস বাংলা)