সাধারণ ক্ষমায় দেশে ফিরছে ৩২ হাজার বাংলাদেশি

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ১, ২০১৯ আপডেটঃ ৩:৪৭ অপরাহ্ন

মালয়েশিয়ায় সাধারণ ক্ষমার আওতায় বিনা বাধায় দেশে ফিরতে প্রায় ৩২ হাজার বাংলাদেশি আবেদন করেছেন। তারা বিভিন্ন কারণে মালয়েশিয়ায় অবৈধ বা অনিয়মিত হয়ে পড়েছিলেন। মালয়েশিয়া সরকার অবৈধ বিদেশি কর্মীদের নিজ নিজ দেশে ফেরত যেতে উৎসাহিত করতে ‘ব্যাক ফর গুড’ (চিরতরে ফেরা) কর্মসূচি চালু করেছে।

এর আওতায় গত সোমবার পর্যন্ত প্রায় ২৯ হাজার বাংলাদেশি সাধারণ ক্ষমার সুযোগ নিয়েছেন। তাদের অনেকে দেশে ফিরেছেন। বাকিরা ফেরার অপেক্ষায় আছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো এ তথ্য জানিয়েছে।

এদিকে মালয়েশিয় প্রবাসী এক বাংলাদেশি অভিযোগ করেছেন, এয়ারলাইনসগুলো টিকিটের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। এ জন্য দেশে ফেরার টিকিট কাটতে গিয়ে তাঁদের বাড়তি টাকা গুনতে হচ্ছে।

কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশন গতকাল শুক্রবার জানায়, মালয়েশিয়া অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতো ইনদিরা খায়রুল জাইমি দাউদের সঙ্গে গত বৃহস্পতিবার হাইকমিশনার মো. শহীদুল ইসলামের দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সাধারণ ক্ষমার আওতায় বাংলাদেশের অবৈধ কর্মীদের দেশে ফিরে আসার জন্য মালয়েশিয়া সরকারের ‘ব্যাক ফর গুড’ কর্মসূচি, আটক

কেন্দ্রগুলোতে থাকা বাংলাদেশিদের জন্য যথাযথ আইনি প্রক্রয়া দ্রুত নিশ্চিতকরণ, ছাত্র, পেশাজীবী ও সাধারণ কর্মীদের ভিসা নবায়ন প্রক্রিয়া সহজীকরণ এবং কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বাংলাদেশিদের অভিবাসন প্রক্রিয়ায় আরো সহায়তা প্রদানসহ বিভিন্ন বিষয় প্রাধান্য পায়।

মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক আশা করেন, বাংলাদেশিসহ অন্য যেসব দেশের কর্মীরা অবৈধ অবস্থায় সেখানে আছে তারা মালয়েশিয়া সরকারের এই সুযোগ গ্রহণ করবে।

প্রসঙ্গত, ‘ব্যাক ফর গুড’ কর্মসূচি ঘোষণার আগে দেশে ফিরতে আগ্রহী অবৈধ অভিবাসীদের জেল-জরিমানা ও বিভিন্ন ধরনের শান্তির সম্মুখীন হতে হতো। অবৈধ অভিবাসীদের দুর্দশা লাঘবে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ গত জুলাই মাসে ‘ব্যাক ফর গুড’ কর্মসূচি নেন। গত ১ আগস্ট শুরু হওয়া এই কর্মসূচি চলবে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পযন্ত।

এর আওতায় অবৈধ বিদেশি কর্মীকে ৭০০ মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত (প্রায় ১৪ হাজার টাকা) জরিমানা দেওয়ার পাশাপাশি ফিরতি টিকিটসহ আবেদন করতে হবে। মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগ থেকে ছাড়পত্র পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে তাদের সে দেশ ত্যাগ করতে হবে।

এসএইচ-০৭/০১/১৯ (প্রবাস ডেস্ক)