যুবকের দু’হাতের কব্জি কেটে নিলো চেয়ারম্যান বাহিনী!

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯ আপডেটঃ ৩:৪৬ অপরাহ্ন

ঘাট নিয়ে বিরোধের জেরে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে রুবেল হোসেন (৩০) এক যুবকের দুই হাতের কব্জি কেটে নিয়েছে প্রতিপক্ষ।

বুধবার গভীর রাতে উপজেলার উজিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান ফয়েজ উদ্দিনের ব্যক্তিগত কার্যালয়ের পেছনের ফাঁকা মাঠে এই ঘটনা ঘটে।

আহত রুবেল হোসেন নয়লাভাঙা ইউনিয়নের রানীহাটি গ্রামের খোদাবক্সের ছেলে।

গুরুতর অবস্থায় বৃহস্পতিবার ভোরে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে।

বর্তমানে হাসপতালের ৩১ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ওই যুবক।

হাসপাতালে ওই যুবক দাবি করেন, উপজেলার উজিরপুর ইউনিয়নের নতুন পদ্মার ফেরিঘাট নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই চেয়ারম্যান ফয়েজ উদ্দিনের সাথে তার চাচাতো ভাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আবদুস সালামের বিরোধ করে আসছিলো।

বুধবার রাতে চেয়ারম্যানের কার্যালয়ের সামনে দিয়ে যাবার সময় দুই বন্ধুর সাথে তাকে আটকার চেয়ারম্যান। পরে গভীর রাতে চেয়ারম্যানের লোকজন তাকে চোখ বেধে তুলে নিয়ে যায়। চেয়ারম্যান দাঁড়িয়ে থেকে সহযোগীদের তার দুহাতের কব্জি কেনে নেন।

তারা ফেলে রেখে যাবার পর বন্ধরা তাকে উদ্ধার করেন। পরে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়।

অভিযোগ বিষয়ে জানতে কয়েক দফা চেষ্টা করেও চেয়ারম্যান ফয়েজ উদ্দিনের মুঠোফোনে সংযোগ পাওয়া যায়নি।

তবে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন একই ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য তরিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, অনেকদিন আগে থেকে ওই ঘাট নিয়ে দুটি পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিলো। এছাড়া একটি গরুর খাটাল নিয়েও বিরোধ ছিলো তাদের মধ্যে।

এনিয়েই ওই যুবককে তুলে নিয়ে গিয়ে হাত কেটে নেয়া হয়েছে বলে তিনি শুনেছেন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেছেন শিবগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুল ইসলাম। এনিয়ে আইনত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি।

বিএ-১০/১৯-০৯ (নিজস্ব প্রতিবেদক)