ছাত্রীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলায় আইএইচটি বন্ধ ঘোষণা (অডিও)

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ৬, ২০১৭ আপডেটঃ ৯:২৩ অপরাহ্ন

রাজশাহী ইন্সটিটিউট অব হেলথ টেকনোলজিতে (আইএইচটি) বুধবার সকালে আন্দোলনরত ছাত্রীদের ওপর হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। হামলায় অন্তত ৫ ছাত্রী আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৩ জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ক্যাম্পাসটি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ।

হামলায় আহত ছাত্রীরা হলেন- মিম, জ্যোতি, মহুনা, নাদিরা ও মোহনা। তারা সবাই ফার্মেসী ও ল্যাব বিভাগের শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে জ্যেতি, মহুনা ও নাদিরাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দীর্ঘ দিন থেকে বহিরাগত ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা হেলথ টেকনোলজির ছাত্রীদের উত্তপ্ত করে আসছিল। এজন্য ক্যাম্পাসে ছাত্রীদের নিরাপত্তরার দাবিতে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষকে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন তারা। এসময় পুলিশ এসে অধ্যক্ষকের কক্ষ থেকে ছাত্রীদের সরিয়ে দেন। এর কিছুক্ষণ পরেই প্রতিষ্ঠানটির শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে বহিরাগতগতসহ অন্তত ৫০ জন আন্দোলনরত ছাত্রীদের ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগ। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ক্যাম্পাসে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আইএইচটির ছাত্রীরা অভিযোগ করে জানান, ক্যাম্পাসের ভেতরেই তাদের হোস্টেল। এই  হোস্টেলে যখন-তখন ঢোকার চেষ্টা করেন আইএইচটির ছাত্রলীগের নেতারা। হোস্টেলের বাইরে থেকে তাদের উদ্দেশ্যে করে অশ্লীল কথাবার্তা এবং গালিগালাজও করা হয়। এসবের প্রতিবাদে তারা বুধবার সকালে অধ্যক্ষর কাছে স্মারকলিপি দিতে যান। স্মারকলিপি দিয়ে তারা তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবিতে অধ্যক্ষের কার্যালয়েই অবস্থান নেন। একপর্যায়ে অধ্যক্ষ তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের আশ্বাস দিলে তারা হোস্টেলে ফিরছিলেন। এ সময় তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। হামলায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের পাশাপাশি বহিরাগতরাও ছিলেন বলে অভিযোগ ছাত্রীদের।

তবে ছাত্রীদের ওপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আইএইচটি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি জাহিদ হাসান। তিনি বলেন, ছাত্রীদের সঙ্গে তার আপন বোন এবং ভাতিজিও ছিলেন। তাই তাদের ওপর হামলার প্রশ্নই ওঠে না। তিনি বলেন, ছাত্রীদের সঙ্গে পাঁচজন ছাত্রদল নেতা ছিলেন। তারা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে স্লোগান দিচ্ছিলেন। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদেরকেই ধাওয়া দিয়েছিলেন। এ সময় দৌঁড়ে পালাতে গিয়ে পড়ে দুই জন ছাত্রী আহত হন।

এব্যাপারে রাজশাহী আইএইচটির অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম জানান, নিজেদের মধ্যে আভ্যন্তরীণ কোন্দলে উত্তেজিত হয়ে গিয়েছিল শিক্ষার্থীরা। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে একাডেমিক মিটিং এর সিদ্ধান্ত মোতাবেক অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

রাজশাহী মহানগর (পশ্চিম) পুলিশের অরিরিক্ত কমিশনার আব্দুর রশিদ বলেন, এখানে সকালে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে উত্তেজনা ছিল। আমরা খবর পাওয়ামাত্রই ঘটনাস্থলে চলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ইতোমধ্যেই শিক্ষার্থীরা হোস্টেল ছেড়ে চলেও গেছে। ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিস্তারিত শুনুন নবাব হোসেনের প্রতিবেদনে-

ছাত্রীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলায় আইএইচটি বন্ধ ঘোষণা

ছাত্রীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলায় আইএইচটি বন্ধ ঘোষণা

Posted by Radio Padma News on Wednesday, December 6, 2017