প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে এমসিকিউ তুলে দেওয়া হবে: শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ ফেব্রুয়ারী ১২, ২০১৮ আপডেটঃ ৮:৪৮ অপরাহ্ন

একটি চক্র প্রশ্নপত্র ফাঁস করে সরকারকে বিব্রত করার চেষ্টা করছে। ইতোমধ্যে তাদের কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এমসিকিউ প্রশ্ন পর্যায়ক্রমে তুলে দেওয়া হবে। তাহলে প্রশ্ন ফাঁসের সুযোগ থাকবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী।

সোমবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়।

এবারের এসএসসি পরীক্ষায় টানা ৭ দিন প্রশ্নফাঁসের পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের প্রতিমন্ত্রী সংসদকে এ কথা জানালেন।

আরও খবর: পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে মোবাইল ফোন পেলে গ্রেফতার

গত কয়েক বছর ধরেই এইচএসসি, এসএসসি থেকে শুরু করে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায়ও প্রশ্ন ফাঁস হচ্ছে। প্রশ্নফাঁসের তথ্য অস্বীকার করলেও বরাবরই ফাঁস রোধে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়ার কথা জানায় সরকার।

গত ১ ফেব্রুয়ারি পরীক্ষা শুরুর দিন থেকেই প্রশ্নপত্র ফাঁস হচ্ছে। তা ঠেকাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়। প্রথমে ফেসবুক বন্ধের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

পরীক্ষার্থীদের ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশ ও আসনে বসার নির্দেশ দেওয়া হয়। তাতেও কাজ না হওয়ায় পরীক্ষার দুই ঘণ্টা আগে থেকে ইন্টারনেটের গতি ধীর করার নির্দেশ দেওয়া হয়। এ পদক্ষেপ সোমবার প্রথমবারের মতো বাস্তবান করা হয়। এদিনই সংসদে নতুন পদক্ষেপের কথা জানালেন প্রতিমন্ত্রী।

এমও-১৬/১২-০২ (শিক্ষা ডেস্ক)