রামেকে রাবি শিক্ষককে পেটানোর ঘটনায় এবার আইসিটি আইনে মামলা

প্রকাশিতঃ মার্চ ৯, ২০১৮ আপডেটঃ ৪:০৪ অপরাহ্ন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এটিএম এনামুল জহিরকে মারধরের ঘটনায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের চারজন ইন্টার্ণ চিকিৎসকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার রাবি শিক্ষকের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাড. কামরুল ইসলাম বাদী হয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে আইসিটি অ্যাক্টের ৫৭ ও ৬৬ ধারায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (রামেক) ইন্টার্ণ চিকিৎসক মেরি প্রিয়াংকা, মির্জা কামাল হোসেন, লুৎফর রহমান, দেবপ্রিয় দাস, চিটাগং বিজিসি ট্রাস্ট মেডিকেল কলেজের শরিফুল ইসলাম, চাঁদপুর সুর্যের হাসি ক্লিনিকের ফারজানা নিপা, পিজি হাসপাতালের মামুনুর রশীদ, রোমানা বিনতে রেজা, বাংলাদেশ চরু হাসাপাতালের তাওহিদ হোসেন রুবেল ও সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের শাহরিয়ার কবির।

মামলার বাদী কামরুল ইসলাম জানান, গত ৭ মার্চ সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে ১০ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিচারক সাইফুল ইসলাম শাহবাগ থানাকে অভিযোগ আকারে মামলাটি গ্রহণ করে দ্রুত তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

আরও খবর: রুয়েটে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, কমিটি স্থগিত

উল্লেখ্য, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি রাতে রামেক হাসপাতালে চলাচলের সময় ধাক্কা লাগাকে কেন্দ্র করে রাবি শিক্ষক এনামুল জহিরকে একটি ঘরে আটকে রেখে বেধড়ক মারপিট করে হাসপাতালের বেশ কয়েকজন ইন্টার্ণ চিকিৎসক। ঘটনার প্রতিবাদে পরদিন দুপুরে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে রাবি শিক্ষার্থীরা।

অপরদিকে, রাবি শিক্ষককে দায়ী করে তার শাস্তির দাবিতে কর্মবিরতি পালন করে রামেক ইন্টার্ণ চিকিৎসকরা। এ ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা দায়েরের করা হয়।

তবে গত ২৭ ফেব্রুবয়ারি রাতে রাবি ও রামেক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি মিমাংসা করে নেয়। এর একদিন পর দু’পক্ষের মামলা প্রত্যাহার করা হয়। এর ৮ দিন পর ফের রাবি শিক্ষকের পক্ষে মামলা দায়েরের ঘটনা ঘটলো।

এমও-০৫/০৯-০৩ (শিক্ষা ডেস্ক)