রুয়েটে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ, ক্যাম্পাস ছাড়ছে শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিতঃ মার্চ ১০, ২০১৮ আপডেটঃ ৯:৫৯ অপরাহ্ন

রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় ক্যাম্পাস আতঙ্ক বিরাজ করছে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কোন ছুটির নির্দেশ না দিলেও ক্যাম্পাস ছাড়ছে অধিকাংশ আবাসিক শিক্ষার্থীরা। তবে যেকোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে।

আবাসিক শিক্ষার্থী সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ে শহীদ আব্দুল হামিদ, সেলিম হল, জিয়াউর রহমান হলসহ বিভিন্ন হল ছাড়ছে শিক্ষার্থীরা। এমনকি তাদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সেলিম হলের আবাসিক শিক্ষার্থী সাব্বির আহমেদ বলেন, ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ক্যাম্পাসে আতঙ্ক কাজ করছে। পরিস্থিতি শান্ত হলে আবার হলে ফিরে আসব। এদিকে শুক্রবার রাতে শহীদ আব্দুল হামিদ হলের বেশ কয়েকটি কক্ষে ব্যাপক ভাঙচুরের চিহ্ন পাওয়া যায়।

আরও খবর: রুয়েট হল থেকে ১১ জন আটক, মুচলেকায় ছাড়

হলের দরজা ও বারান্দার জানালার কাচ এবং কয়েকটি কক্ষে ভাঙচুর করা হয়েছে। কিছু স্থানে রক্তের চিহ্ন পড়ে আছে। লাঠি-সোটা, রডসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্রও পড়ে থাকতে দেখা গেছে। এ ঘটনায় শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত তল্লাশি চালিয়ে তিনজন বহিরাগতসহ ১০ জনকে আটক করে পুলিশ। পরে শনিবার সকালে তাদের আবাসিকতা না থাকায় ছেড়ে দেয়া হয়।

মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন বলেন, রুয়েটে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে আমরা কয়েকটি হলে তল্লাশি চালাই। এ সময় ১০ জনকে আটক করেছি। তারা শিক্ষার্থী হওয়ায় সকালে মুচলেকায় ছেড়ে দিয়েছি। ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। আমরা সর্বদা সোচ্চার আছি।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ আব্দুল হামিদ আবাসিক হলে ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক গ্রুপের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১০ জন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী আহত হয়। পর তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এমও-২০/১০-০৩ (শিক্ষা ডেস্ক)