পুনরায় সব পদে ভোট চান নুর

প্রকাশিতঃ মার্চ ১২, ২০১৯ আপডেটঃ ৯:১৯ অপরাহ্ন

আগামী ৩১ মার্চের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের ফল বাতিল করে পুনরায় অনুষ্ঠানের দাবি জানিয়েছেন নবনির্বাচিত সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর। তবে একই সময় তিনি ভিপি পদে শপথ নেওয়ার কথাও জানান। ডাকসু নির্বাচনের ফল বাতিলের দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের সঙ্গে থাকার ঘোষণাও দেন তিনি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) বাম ঐক্যের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি এসব কথা বলেন।

নুরুল হক নুর বলেন, সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি হিসেবে তাদের সুবিধার্থে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি আপাতত বাতিল। তবে সাধারণ শিক্ষার্থীদের যে আন্দোলনগুলো চলমান সেগুলোর সঙ্গে আমি একমত। এই নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ। পুনর্নির্বাচন হলে আমাদের প্যানেল নিরঙ্কুশ জয়লাভ করবে।

তিনি আরও বলেন, ছাত্ররা যে রকম আশা করেছিল, সে রকম নির্বাচন হয়নি। ছাত্রলীগ বাদে সবাই ভোট বর্জন করেন। কারচুপি করেও আমাদের ঠেকাতে পারেনি। সাধারণ ছাত্ররা একচেটিয়া ভোট দিয়েছে ভিপি ও সমাজসেবা পদে; যে কারণে তারা ইঞ্জিনিয়ারিং করেও ওই দুই পদ নিতে পারেনি। শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি হিসেবে আমি বলতে চাই, যেহেতু আরও অনেক প্যানেল নির্বাচনে অংশ নিয়েছে, আমরা তাদের দাবির সঙ্গে একমত। এ নির্বাচন পুনরায় হতে হবে এবং নির্বাচনে যারা দায়িত্ব পালন করেছে তাদের পদত্যাগ করতে হবে; অন্যদের অধীনে আমরা নির্বাচনে অংশ নেব।

তিনি বলেন, হাইকোর্টের আগের নির্দেশনা অনুসারে ৩১ মার্চের মধ্যে ডাকসু নির্বাচন হওয়ার কথা। সেই সময়ের মধ্যেই নির্বাচন হোক।

ছাত্রলীগের সভাপতি ও ডাকসু নির্বাচনে ভিপি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের সঙ্গে কোলাকুলির প্রসঙ্গে নুর বলেন, ক্ষমতাসীনরা যখন সুবিধাজনক মনে করে, যখন আমাদের লাগে, তখন বুকে টেনে নেয়। আবার যখন মনে করে আমরা শত্রু, তখন মার দেয়। তাদের মুখে মধু, অন্তরে বিষ। তাদের বিশ্বাস করাটা খুব টাফ।

নুরুল হক নুর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলে চলে যাওয়ার পর প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্যের ভিপি প্রার্থী ও ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী টিএসসিতে কথা বলেন সাংবাদিকদের সঙ্গে। তিনি বলেন, আগামী তিনদিনের ভেতরে নতুন করে পুনরায় তফসিল ঘোষণা দিতে হবে। তা না হলে নতুন করে কর্মসূচি দেব। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে থেকে আমরা উপাচার্যের কার্যালয়ে যাব। সেখানে আমরা অবস্থান কর্মসূচি পালন করব।

এরআগে মঙ্গলবার বিকেলে নুরুল হক নুরকে বরণ করে নেয় ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে তাকে বরণ করে নেন; এসময় দুইজন হাসিমুখে কোলাকুলি করেন। ছাত্রলীগ সভাপতি ও ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপির এ সময় কথাবার্তা হয়। সেখানে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী ও অন্যান্য দলের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত থাকলেও ডাকসুর নবনির্বাচিত জিএস (সাধারণ সম্পাদক) গোলাম রাব্বানীকে দেখা যায়নি। ছাত্রলীগ সভাপতির সঙ্গে কোলাকুলির পর বিশ্ববিদ্যালয়ে নুরুল ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন নিয়ে আগের দেওয়া ঘোষণা প্রত্যাহারের কথা জানান।

মঙ্গলবার দুপুরে ভিসির বাসভবনের সামনে নেওয়া ছাত্রলীগের অবস্থান কর্মসূচি প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন ছাত্রলীগ সভাপতি। সভাপতির নির্দেশের পরে নেতাকর্মীরা ভিসির বাসভবনের সামনে নেওয়া অবস্থান কর্মসূচি প্রত্যাহার করেন। বিকেল পৌনে ৪টার দিকে ওই এলাকায় যান চলাচল শুরু হয়।

সোমবার রাত ৩টা ২৪ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও পদাধিকার বলে ডাকসুর সভাপতি অধ্যাপক আখতারুজ্জামান ডাকসু নির্বাচনের চূড়ান্ত ফল ঘোষণা করেন।

বহুল প্রতীক্ষিত ডাকসু নির্বাচনে ভিপি পদে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নুর ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ সমর্থিত প্যানেল থেকে ভিপি পদে নির্বাচন করেন। তিনি ১১ হাজার ৬২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন।

ডাকসুর ভিপি পদে নুর জয়ী হলেও জিএস, এজিএসসহ বেশিরভাগ পদে ছাত্রলীগের প্রার্থীরাই বিজয়ী হয়েছেন। জিএস পদে গোলাম রাব্বানী ও এজিএস পদে সাদ্দাম হোসাইন বিজয়ী হন। ভিপি ছাড়াও সমাজসেবা সম্পাদক পদে ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ প্যানেলের আখতার হোসেন জয়লাভ করেন।

বিএ-১৯/১২-০৩ (শিক্ষা ডেস্ক)