রাজশাহী কলেজের মঙ্গল শোভাযাত্রায় থাকবে উন্নয়নের বার্তা

প্রকাশিতঃ এপ্রিল ১১, ২০১৯ আপডেটঃ ১০:১৭ অপরাহ্ন

বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ আসতে বাকি আর মাত্র দুই দিন। আর এই উৎসবকে স্বাগত জানাতে পুরোদমে প্রস্তুতি নিচ্ছে রাজশাহী কলেজ। বৈশাখকে বরণ করে নিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ।

সেই সাথে কলেজরে বিভিন্ন সংগঠন ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। অন্যান্য বছরের ন্যায় এবারও পহেলা বৈশাখে থাকছে মঙ্গল শোভাযাত্রা। কলেজ প্রশাসনের পৃষ্ঠপোষকতায় অনুষ্ঠিত হবে এ শোভাযাত্রা।

এদিন সকাল ৯টায় কলেজ মাঠে বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান। অধ্যক্ষের নেতৃত্বে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মাঠে জমায়িত বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে আলাদা আলাদা ব্যানারে বের হবে মঙ্গল শোভাযাত্রা।

রাজশাহীর সবচেয়ে বড় এই শোভাযাত্রাটি নগরীর আলুপট্টি মোড় হয়ে পুনরায় কলেজ মাঠে এসে শেষ হবে।এরপর বিভাগে বিভাগে চলবে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীদের বৈশাখী আপ্যায়ন।  আর অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে থাকছে আলোচনা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এবারের মঙ্গল শোভাযাত্রায় থাকছে বিরাট আকৃতির ডানাওয়ালা পঙ্খীরাজ। বাংলাদেশ উন্নায়নে যে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে সামনের দিকে ও পাশাপাশি দেশের শিক্ষাব্যবস্থার ক্ষেত্রে রাজশাহী কলেজ যে অদম্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। সেটাকে বোঝানোর জন্য পঙ্খীরাজের ডানা ব্যবহার করা হয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

তবে অন্যান্যবার মঙ্গল শোভাযাত্রায় প্রাণীর রঙ-বেরঙের মুখোশ থাকলেও এবার এটি থাকছে না বলে জানান অনুষ্ঠানের আহবায়ক অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আবদুল খালেক। তিনি বলেন, ‘মুখোশ ব্যবহারে রাষ্ট্রীয় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। সেজন্য এবার মুখোশ রাখা হয়নি।’

তিনি আরো জানান, গ্রাম বাংলার চিত্র থাকবে এবারের শোভাযাত্রায়। বর-বধূ, পালকী, কৃষক-কৃষাণী, জেলে, ঠাকুর, পাদরী, গেরুয়া পোশাকে বাউলের অংশগ্রহণ থাকবে শোভাযাত্রায়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সাগর আর্টের একদল শিল্পী বাঁশ,বেত, কাঠ ইত্যাদি দিয়ে আকর্ষণীয়ভাবে তৈরি করছেন ডানাওয়ালা পঙ্খীরাজ। এছাড়াও প্রজাপতি, মাছ, পশু-পাখীর প্রায় ৩’শত মুখোশ তৈরি করছিলেন তাঁরা।

সাগর রজক নামে একজন শিল্পী বলেন, ‘আমরা এখানে চারজন কাজ করছি। গত ৬ তারিখ থেকে কাজ শুরু করেছে। এখন পর্যন্ত ৭০% কাজ হয়েছে। আশা করছি খুব দ্রুতই আমরা কাজ শেষ করতে পারব।’

এদিকে, গেটের কাজে শেষ হয়েছে আজ সন্ধ্যায়। স্টেজের ফেম করা হয়েছে শুধু। স্টেজের বাকি কাজ শেষ হবে আগামী শনিবার বলে জানিয়েছেন আলো ডেকোরেটরের সোহেল রানা নামের এককর্মী।

বিএ-১৮/১১-০৪ (নিজস্ব প্রতিবেদক)