বান্ধবীর করা পর্নোগ্রাফি মামলায় রাবি শিক্ষার্থী ধরা

প্রকাশিতঃ আগস্ট ২৮, ২০১৯ আপডেটঃ ৫:৪৯ অপরাহ্ন

পরিবারের ইচ্ছায় বিয়ের পিঁড়িতে বসেন প্রেমিকা। কিন্তু তা মেনে নিতে পারেননি প্রেমিক খালিদ বিন ওয়ালিদ।

বিয়ের আগে প্রেমিকার সাথে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ধারণ করেছিলেন তিনি। বিয়ের পর সেগুলো পাঠিয়ে দেন প্রেমিকার স্বামীর কাছে।

এ ঘটনায় সাবেক প্রেমিকা তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন পর্ণগ্রাফি মামলায়। মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাদারবক্স হল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে মতিহার থানা পুলিশ।

খালিদ বিন ওয়ালিদ বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী এবং বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির প্রচার সম্পাদক।

খালিদের পরিচিতজনরা বলছেন, ২০১৭ সালে ওই মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তার। এরপর মেয়ের বিয়ে হয়ে যায়। কিছুদিন পর ওই মেয়ের স্বামীকে একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে কিছু ছবি সরবরাহ করা হয়। এ বিষয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ দেন মেয়েটি।

এরপর মঙ্গলবার রাতে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাদারবক্স হলের পাশ থেকে ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান বলেন, মঙ্গলবার ওই মেয়ে মতিহার থানায় মামলা দায়ের করেছে। তার প্রেক্ষিতে পুলিশ এক শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করে নিয়ে গেছে।

মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান বলেন, বান্ধবীর পর্নোগ্রাফি মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। অভিযোগ তদন্ত করা হবে। বর্তমানে সে মতিহার থানায় আছে।

বিএ-০৯/২৮-০৮ (শিক্ষা ডেস্ক)