গয়না আত্মসাতে অভিনেত্রী হিনার নামে আইনি নোটিশ

প্রকাশিতঃ জুলাই ২০, ২০১৮ আপডেটঃ ৮:৪৮ অপরাহ্ন

মোটামুটি সবরকম বিতর্কেই জড়ানো হয়ে গিয়েছে হিনা খানের৷ দিনে একবার নিয়মকরে ট্রোল করেন তাঁকে নেটিজেনরা৷ তাতে অবশ্য হিনা তেমন মাথা ঘামান না৷ সবকিছু নজরে তাঁর আসে, তাই সুযোগ এবং সময় হলেই সেই সমস্ত ট্রোলের কড়া জবাবও দিয়েছেন অভিনেত্রী৷

নিজেকে সবর্দা মিস পারফেক্ট দেখানোর চেষ্টায় থাকা হিনা খানের বিরুদ্ধে উঠল গয়না আত্মসাৎ করার অভিযোগ৷ একটি সংস্থার সোনার গয়না ফেরত না দেওয়ার অভিযোগ ওঠে হিনার বিরুদ্ধে৷ সূত্রের খবর আইনি নোটিশও পাঠানো হয়েছে হিনার কাছে৷

রিয়্যালিটি শো ‘বিগ বস’র এন্টারটেনার হিসেবে সম্প্রতি ‘দাদাসাহেব ফালকে’ পুরষ্কারে সম্মানিত হয়েছিলেন হিনা খান৷ সেই অনুষ্ঠানে পুরষ্কারটি গ্রহণ করতে গিয়ে তিনি একটি লাল-কালো-সাদা রঙের স্টেটমেন্ট শাড়ির সঙ্গে সোনার নেকপিসও পরেছিলেন৷ সেই হারটি একটি সংস্থা থেকে তাঁকে অনুষ্ঠানের জন্য পরতে দেওয়া হয়েছিল৷ অনুষ্ঠানটি শেষ হয়ে গিয়েছে অনেকদিন৷ কিন্তু সেই গয়নার সংস্থা আজও হারটি ফেরত পায়নি৷ এমনই দাবি এনেছেন সেই সংস্থার কর্তৃপক্ষ৷

বহুদিন গয়না ফেরত না পাওয়ায় সেই গয়না ব্যবসায়ী হিনার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন৷ হিনাকে গয়নার বিষয় জিজ্ঞাসাবাদ করায় তিনি জানিয়েছিলেন তাঁর স্টাইলিস্ট হারটি হারিয়ে ফেলেছেন৷

আরও খবর : ইউটিউব মাতাচ্ছে মালবিকার ‘প্রিটি গার্ল’! (ভিডিও)

সূত্রের খবর, সোনার নেকপিসটি হারিয়ে ফেলায় ব্যবসায়ীকে হুমকিও দিয়েছেন হিনা৷ অভিনেত্রী কে অনুরোধ করা হয়েছিল হয় হারটি ফেরত দিতে হবে নয়তো হারটির মূল্য দতে হবে৷ হারটির মূল্য ১১ লক্ষ টাকা৷ ব্যবসায়ী, হিনাকে এও বলেছেন যে ১১ লক্ষ টাকার পাশাপাশি আরও দুই লক্ষ টাকা দিয়ে হিনাকে একটি ক্ষমাপ্রার্থনার চিঠিও দিতে হবে৷

হিনা এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন৷ নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে লিখেছেন, “LOL. আমি তো অবাক হচ্ছি এটাই ভেবে যে আইনি নোটিশটা এখনও আমার বাড়ি এসে পৌঁছল না৷ আমার বাড়ির বদলে সোজা সংবাদমাধ্যমের কাছে পৌঁছে গেল কীকরে?” নিন্দুকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেছেন, “এসব ট্যাকটিকে কোনও লাভ হবে না৷ নতুন কিছু চেষ্টা কর৷ ‘ভাসুড়ি’ এখনও সফলতার দিকে এগোবে৷”

সম্প্রতি হিনার প্রথম মিউজিক ভিডিও ‘ভাসুড়ি’ মুক্তি পেয়েছে৷ আর ইতিমধ্যেই সেই গানটি সুপারডুপার হিটও হয়ে গিয়েছে৷ ২৮ ঘন্টার মধ্যে ৫.৫ মিলিয়ন ভিউজ ছাড়িয়ে গিয়েছিল গানটি৷ এখন গানটির ভিউজ ১০ মিলিয়নেরও বেশি৷ এমনকি ইউটিউবে ‘মোস্ট পপুলার ভিডিও’ এবং ‘মোস্ট পুপলার পঞ্জাবি ভিডিও’তে দুই নম্বর পোজিশনে ট্রেন্ড করছে৷ তার ওপর সবথেকে বেশিবার দেখা ভিডিওর মধ্যেও আমরা ছয় নম্বর পোজিশনে রয়েছে মিউজিক ভিডিওটি৷

অভিনেত্রীর অনুমান, নিন্দুকরা তাঁর সফলতা সহ্য করতে পারছে না৷ তাই তাঁর বিরুদ্ধে এসব খবর ছড়িয়ে বেড়াচ্ছে৷ সত্যি-মিথ্যে বিচার করবে সময়৷ এখনও পর্যন্ত সেই গয়না ব্যবসায়ীর তরফ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি৷

এসএইচ-১৬/২০/০৭ (বিনোদন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : কলকাতা২৪)