ফের আলোচনায় তাহসান-মিথিলার বিচ্ছেদ

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ৫, ২০১৯ আপডেটঃ ২:১২ অপরাহ্ন

তারকা দম্পতি তাহসান-মিথিলার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে দুই বছর আগে। এর মাধ্যমে তারা দীর্ঘ ১১ বছরের সংসার জীবনের ইতি টানেন। ঘটনার দুই মাস পর ওই বছরের ২০ জুলাই ফেসবুকে বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দেন তাহসান-মিথিলা।

বিচ্ছেদের পর মিথিলা বলেছিলেন, একটি ইস্যু নিয়ে তো আর কখনো বিচ্ছেদ হয় না। বাংলাদেশের সামাজিক প্রেক্ষাপটে একজন মেয়ের জন্য বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেওয়াটা এত সহজ নয়। কিন্তু একটা সময় আমাকে মেনে নিতে হয়েছে এটাই বাস্তবতা।

জীবনচলার পথের একটা সময় এসে আমরা বুঝতে পারলাম, দুজন মানুষ যার যার জায়গা থেকে দুই ধরনের জিনিস চাই। তাহসানের জীবনের লক্ষ্য হয়তো একরকম, আমার হয়তো আরেক রকম। তবু দুজন ভিন্ন রকম মানুষ তো একসঙ্গে থাকে। আমরাও থেকেছি। শেষ পর্যন্ত আর হলো না।

আমাদের যখন বিয়ে হয়, তখন আমাদের দুজনের বয়সই অনেক কম। আমাদের ক্যারিয়ারও একসঙ্গে গড়ে উঠেছে। এমন না যে, কেউ কারও আগে বা পরে এসেছি। সেসব দিক থেকে আমাদের মধ্যে কোনো ঝামেলা ছিল না। কিন্তু একটা সময় এসে মনে হচ্ছিল, ১১ বছর আগের একজন মানুষ আর পরের একজন এক থাকে না। অনেক পরিবর্তন দেখা যায়। তাই বিচ্ছেদের মতো কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হতে হয়েছে।

আর বিচ্ছেদ প্রসঙ্গে তাহসান বলেছিলেন, সমাজ কী বলবে—এই ভয়ে অভিনয় করে সারা জীবন কাটিয়ে দিতে হবে, আমরা দুজন এ ব্যাপারে একমত নই।

তাদের বক্তব্যে বিচ্ছেদের কারণ স্পষ্ট না হলেও তখন ভক্তদের অনেকে এর জন্য তাহসানকে দায়ী করেছিলেন। তাহসান-মিথিলার বিচ্ছেদের দুই বছরেরও বেশি সময় পর ফের আলোচনায় এসেছে বিষয়টি।

সোমবার (৪ নভেম্বর) নির্মাতা ও পরিচালক ইফতেখার আহমেদ ফাহমির সঙ্গে মিথিলার অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ভাইরাল হয়। ফাঁস হয় ফাহমির সঙ্গে মিথিলার খোলামেলা শরীরের ভিডিও চ্যাট করার কিছু ছবিও।

এর পরই ফের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাহসান-মিথিলার বিবাহবিচ্ছেদ প্রসঙ্গ আলোচনায় আসে। অনেকেই এখন এই জুটির বিচ্ছেদের জন্য মিথিলাকে দায়ী করছেন। প্রশ্ন তুলছেন মিথিলার পরকীয়া প্রেম নিয়েও।

ছবি ভাইরাল হওয়ার পর মিথিলার ভাষ্য, এটা অস্বাভাবিক কোনো ছবি না।

আর এ বিষয়ে পরিচালক ইফতেখার ফাহমিও। তিনি একটি ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, হ্যা মিথিলা আর আমার পরকিয়া হয়েছে। একবার নয় অনেকবার। আর এটা নিয়ে মজা করার কিছুই নেই। আমরা দুজন জাস্টফ্রেন্ড।

আরএম-০১/০৫/১১ (বিনোদন ডেস্ক)