দুদকের নজরে নায়ক শান্ত খান

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) নজরে পড়েছেন ঢাকাই সিনেমার নায়ক শান্ত খান। তার ১৫ কোটি টাকার সন্দেহজনক স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের খোঁজ পেয়েছে দুদক।

এসবের সত্যতা জানতে দেশি-বিদেশি ৫৮টি ব্যাংককে চিঠি পাঠিয়েছে সংস্থাটি। বুধবার দুদকের সহকারী পরিচালক আতাউর রহমান সরকার স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যাংকের কাছে এ তথ্য চাওয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, শান্ত খানের অবৈধ ব্যবসার মাধ্যমে আয় বহির্ভূত সম্পদের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অভিযোগের সুষ্ঠু অনুসন্ধানের স্বার্থে ব্যাংকগুলোতে তার নিজের ও যৌথ নামীয় সঞ্চয়ী, চলতি হিসাব, এফডিআর, ডিপিএস ইত্যাদির হিসাব বিবরণী, হিসাব খোলার ফরম ও কেওয়াইসি পাঠাতে বলা হয়েছে। এছাড়া ঋণ হিসাব সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য, জামানত ও ঋণ পরিশোধের তথ্য, সঞ্চয়পত্র ও ক্রেডিট কার্ড সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য চাওয়া হয়েছে।

প্রযোজনা সংস্থা শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার সেলিম খানের ছেলে শান্ত খান। বড়পর্দায় তার অভিষেক হয়েছিল ২০১৯ সালে। এখন পর্যন্ত বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। মুক্তি পেয়েছে মাত্র তিনটি সিনেমা।

শান্ত খানের বাবা সেলিম খানও আছেন দুদকের নজরে। গত ১ আগস্ট দুদকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে দুদকের সহকারী পরিচালক ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা আতাউর রহমান প্রধান বাদী হয়ে মামলা করেন সেলিম খানের বিরুদ্ধে। মূলত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও সম্পদ গোপনের অভিযোগে মামলাটি করা হয়।

এসএইচ-১০/১৮/২২ (বিনোদন ডেস্ক)

Exit mobile version