সবকিছুরই পরিমিতিবোধ থাকা উচিত, পুনমকাণ্ডে জয়া আহসান

পুনম পান্ডেকে নিয়ে তোলপাল বলিউড পাড়া। তার ব্যক্তিগত ভেরিফাইড ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে হঠাৎ মৃত্যুর স্ট্যাটাসটি ঘিরেই যত শোরগোল। অবশ্য পরে জানা যায়, আসলে মারা যাননি পুনম। বিশ্ব ক্যানসার দিবস উপলক্ষ্যে ‘জরায়ুমুখের ক্যানসার’ নিয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্যই এ অভিনব কৌশল অবলম্বন করেছিলেন তিনি। এরপর বিষয়টি নিয়ে এক ভিডিও বার্তায় ভক্তদের কাছে ক্ষমাও চান তিনি।

এদিকে, পুনমের এমন ঘটনা শুনে না কি খানিক অবাক হয়েছিলেন জয়া আহসান। তিনি জানান, সব কিছুর একটা পরিমিতিবোধ থাকা উচিত। সীমা ছাড়িয়ে সচেতনার বার্তা দেওয়া উচিত্‍ নয়।

জয়া বলেন, আমার ক্ষেত্রেও এমন হয়েছিল একবার। বাংলাদেশের এক বিজ্ঞাপনী সংস্থা একটি কনসেপ্ট নিয়ে এসেছিল যে, জয়া আহসান হারিয়ে গেছে— এমন এক ভাবনা ছিল সেই ক্যাম্পেইনের। কিন্তু আমাদেরও মনে রাখা দরকার যে, আমাদের দায়িত্বের কথা। আমাদের ভক্তদের জন্যই আমাদের অস্তিত্ব, তাদের কথা ভুলে গেলে চলবে না।

এর আগে, গত ২ জানুয়ারি ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল থেকে পুনমের মৃত্যুর খবরটি শেয়ার করেন তার ম্যানেজার। সেই সময় তিনি জানান, পুনম সার্ভিকাল ক্যান্সারে (জরায়ুমুখের ক্যান্সার) ভুগছিলেন।

এছাড়া, পুনমের সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখা হয়, আজকের দিনটা আমাদের জন্য খুব দুঃখের। আমরা জরায়ুর ক্যান্সারে ভালোবাসার পুনমকে হারিয়েছি। সমস্ত জীবন্ত প্রাণ, যারা তার সান্নিধ্যে এসেছিল তারা দেখেছেন ও কতটা ভালো এবং দয়ালু। আপাতত, আমরা আপনাদের কাছে কিছু গোপনীয়তা চেয়ে নিচ্ছি। ওকে ভালোভাবে মনে রাখবেন।

পরদিন ৩ ফেব্রুয়ারি সবাইকে অবাক করে ইনস্টাগ্রামে এক ভিডিও বার্তায় নিজের বেঁচে থাকার খবরটি জানান পুনম নিজেই। ভিডিওতে পুনম বলেন, আমি বেঁচে আছি। সার্ভিক্যাল ক্যান্সারে মারা যাইনি। আর এরপর নেটিজেনদের সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। এমন কাণ্ড করায় নেটিজেনরা রীতিমতো ধুয়ে দেন তাকে।

এসএ-০১/০৬/২৪(বিনোদন ডেস্ক)