প্রসব বেদনা কমাতে ডাক্তারের সঙ্গে গর্ভবতীর নাচ! (ভিডিও)

প্রকাশিতঃ জানুয়ারী ২৩, ২০১৮ আপডেটঃ ৭:৪৯ অপরাহ্ন

পৃথিবীতে পরম শান্তির মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে যখন নিজের গর্ভের সন্তান প্রথম বার মা বলে ডাকদেন। একজন মাকে তার সন্তান জন্ম দিতে দীর্ঘ ১০ মাস সময় লাগে। এ সময়টাই ওই মাকে কত না কষ্ট সহ্য করতে হয়। এতো কিছুর পর ওই মা তখনি পরম শান্তি পায়, যখন তার গর্ভ থেকে সুস্থ্য সবল জীবিত সন্তান ভূমিষ্ঠ হয়। সেই সন্তানের মুখে প্রথম কান্না শোনার পরেই মা প্রচণ্ড সুখ অনুভব করে।

সন্তান প্রসবের সময় প্রচণ্ড প্রসবব্যাথা সহ্য করতে হয় একজন মাকে। সেই ব্যাথা এতোটাই কষ্ট দায়ক যা শুধু ওই মা-ই বুঝতে পারে। তাই এই কষ্ট কমাতে ডাক্তাররা বিভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করেন। তাই বলে কি কখনো শুনেছেন, গর্ভবতী মায়ের প্রসব বেদনা কমাতে নাচানোর কথা? এ বিষয়টি জানার পর অনেকে গর্ভবতী মায়েদের অবাক হওয়ার কথা।

আরও খবর : রেলস্টেশন তেরী হলো ৯ ঘন্টায়?

সম্প্রতি এই কাজটিই করেছেন, ব্রাজিলিয়ান ডাক্তার ফার্নান্দো গুয়েডেস ডা কুনহা। মজার ব্যাপার হচ্ছে তিনি ‘ড্যান্সিং ডক্টর’ বলেই বেশি পরিচিত। ড্যান্সিং ডক্টর খ্যাত ডাক্তার ফার্নান্দো গুয়েডেস ডা কুনহা নিজের ইন্সটাগ্রামে প্রায়ই ‘ডেসপাচিতো’ এর মতো জনপ্রিয় গানগুলোর তালে রোগীর সঙ্গে নিজের নাচের ভিডিও আপ করেন। তার আপলোড কৃত সাম্প্রতিক একটি ভিডিওতে দেখা যায়, গর্ভাবস্থায় ডায়াবেটিসে ভোগা এক নারী এই ডাক্তারের সঙ্গে নাচছেন।

একটি গবেষণা মতে, শারীরিক সক্রিয়তা আসলে প্রসব সহজ করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। ওই গবেষণায় বলা হয়, নাচ, হাঁটা, ফিজিওথেরাপি এ সবই প্রসব সহজ করতে পারে। প্রসবে গড়ে ৮ ঘণ্টা সময় লাগতে পারে, কিন্তু নাচের মত ব্যায়ামের ফলে তা আরো কম সময়ে এবং সহজে শেষ হয়।

১৯৯৮ সালের একটি গবেষণায় দেখা যায় প্রসবে সময় কম লাগে হেঁটে বেড়ানোর কারণে। এছাড়া ২০০৩ সালের একটি গবেষণা দেখা যায়, শুয়ে থাকলে প্রসব বেদনা বেশি তীব্র হয়।

হাসপাতাল ইউনিমেড ভিক্টোরিয়াতে ডেসপাচিতোর সঙ্গে নাচের ভিডিও এই ডাক্তারকে জনপ্রিয় করে তোলে। এই হাসপাতালের ফেসবুক পেইজে দেওয়া হয়েছিল সেই ভিডিও।ইতোমধ্যে, ড্যান্সিং ডক্টরের থেকেই উদ্বুদ্ধ হয়ে সম্প্রতি প্রসব কালীন নারীদের নাচের ভিডিও বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তবে নাচ সব প্রসব নারীদের জন্য কাজে নাও লাগতে পারে। ২০১৭ সালের একটি গবেষণায় দেখা যায়, প্রথমবার মা হচ্ছেন এমন নারীদের এপিডিউরাল (ব্যথা কমানোর ইনজেকশন) নেবার পর শুয়ে থাকলে তাদের প্রসব কম সময়ে হয়ে যায়।

ডা: রেজিনা কাপলান বলেন, ‘বার্থ ক্যানালের মধ্যে দিয়ে শিশুর চলাচল সহজ করতে মায়ের চলাফেরা কাজে আসে’। তিনি একজন গাইনোকলজিস্ট।

এসএইচ-২৭/২৩/০১ (অনলাইন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : ডেইলি মেইল)