কাকাকে বিয়ে করতে না চাওয়ায় খুন হলো যুবতি!

প্রকাশিতঃ এপ্রিল ২৫, ২০১৮ আপডেটঃ ১:৫৫ অপরাহ্ন

অনার কিলিংয়ের ছায়া দেখা গেল প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে। ২৬ বছরের যুবতীকে খুন করল তাঁর পরিবারের সদস্যরাই। নিজের বাবা, দাদা ও কাকার হাতেই খুন হতে হল সানা চিমাকে। তাঁর একটাই আপত্তি ছিল। নিজের কাকাকে সে বিয়ে করতে পারবে না।

আর পরিবারের পক্ষ থেকে চাপ দেওয়া হচ্ছিল বিয়ে করতে হবে কাকাকেই। এই ঘটনায় রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। পাকিস্তানের এক সংবাদমাধ্যম এই খবর প্রকাশ করেছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, পরিবারের পক্ষ থেকে দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছে বলে যুবতীর দেহটি কবর দেওয়া হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই খবর চাউর হতেই পুলিশ নেমেছে ঘটনার তদন্ত করতে।

আরও খবর : পানির সমস্যা মেটাতে তিন বিয়ে!

প্রাথমিক তদন্তে‌ উঠে এসেছে মেয়েটির বাবা গুলাম মুস্তাফা চাপ দিচ্ছিলেন সম্পর্কে কাকাকে বিয়ে করতে হবে। আর সানার দাবি ছিল বিয়ে তিনি করতে চান ইতালির এক বাসিন্দাকে।

তবে এখানে কোনও প্রণয়ের বিষয় ছিল কিনা তা এখনও জানা যায়নি। এই কারণে সানাকে খুন হতে হয়েছে কিনা তাও তদন্ত করা হচ্ছে।

পাকিস্তানের মানবাধিকার কমিশনের পক্ষ থেকে ৫০টি অনার কিলিংয়ের ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি সানার মৃত্যুর ঘটনা নিয়েও তাঁরা খতিয়ে দেখছেন বলে খবর। ‌‌

এসএইচ-২৬/২৫/০৪ (অনলাইন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : আজকাল)