ইফতার করতে হয় ২২ ঘণ্টা পর!

প্রকাশিতঃ মে ২৬, ২০১৮ আপডেটঃ ৫:২৯ পূর্বাহ্ন

রোজা হচ্ছে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের পাঁচ স্তম্ভের অন্যতম একটি । বিশ্বের কোনো কোনো দেশে এই পানাহার থেকে বিরত থাকার সময়টা বেশ দীর্ঘ।

বাংলাদেশে রোজাদাররা যেখানে প্রায় ১৫ ঘণ্টা পানাহার থেকে বিরত থাকছেন, সেখানে আইসল্যান্ডে এই সময়টা প্রায় ২২ ঘণ্টা। তাহলে আইসল্যান্ডে বসবাসকারী এক হাজার মুসলমানরা কীভাবে এই দীর্ঘ সময়ের সঙ্গে খাপ খাওয়াচ্ছেন?

পাঁচ বছর আগে পাকিস্তান থেকে আইসল্যান্ড পাড়ি জমান সুলেমান। তিনি জানান, তিনি প্রায় ২২ ঘণ্টা ধরে রোজা পালন করছেন। কারণ রোজা রাখার জন্য সুবেহ সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার থেকে বিরত থাকতে হয়। আমার বিশ্বাসই আমাকে কাজটা সহজ করে দিচ্ছে। এটা খুব সহজ। এটা সহজাত হয়ে যায়। এটা আপনার দিন ও রুটিনের অংশ হয়ে যায়।

আরও খবর : আশ্চর্য সাইকেল (ভিডিও)

তবে সবার পক্ষে এই দীর্ঘ সময় রোজা পালন সহজসাধ্য নয়। যেমনটা বলছিলেন রাজধানী রিকজাভিকের একটি ছোট কমিউনিটির ইমাম মনসুর।

তিনি জানান, দেরি করে সূর্যাস্তের কারণে তারা ১৮ ঘণ্টা রোজা পালন করে থাকেন। তারা যখন রোজা সম্পর্কিত কোরআনের আয়াত পড়েন, তাতে লিখা আছে, আল্লাহ আমাদের জন্য সব কিছু সহজ করতে চান।

মনসুর বলেন, আমরা এমনও ঘটনা শুনেছি যে কেউ কেউ দীর্ঘ সময়ের কারণে অজ্ঞান হয়ে গেছেন।

ভৌগোলিক কারণে আইসল্যান্ডে বছরের এই সময়টায় দিন বেশ দীর্ঘ। সেখানে রাত ১১টায় সূর্য অস্ত যায় আর ভোর ৪টায় উদয় হয়। তাই রাতে খাবার খাওয়ার জন্য মাত্র দুই ঘণ্টা সময় পান সেখানকার রোজাদাররা।

তবে শুধু আইসল্যান্ডেই নয় সুইডেনের সর্ব উত্তরের শহর কিরানা এবং নরওয়ের ট্রোমসোর মুসলিমদেরও ২২ ঘণ্টা রোজা পালন করতে হচ্ছে। আর হেলসিংকি, স্টকহোম, অসলো এবং কোপেনহেগেন শহরের বাসিন্দারা রোজা পালন করছেন প্রায় ২০ ঘণ্টার।

এসএইচ-১০/২৬/০৫ (অনলাইন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : বিবিসি)