অফিসে মিনি-স্কার্ট পরলেই নগদ অর্থ দিচ্ছে রুশ কোম্পানি

প্রকাশিতঃ জুন ৪, ২০১৯ আপডেটঃ ৩:১০ অপরাহ্ন

অফিসে মিনি-স্কার্ট পরলেই অর্থ দেয়া হচ্ছে। নারী কর্মীরা যেন অফিসে মিনি-স্কার্ট পরে আসেন সেজন্য তাদের বোনাস হিসেবে নগদ টাকা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়ার একটি কোম্পানি।

এমন অফার দিয়ে রীতিমত সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে ওই কোম্পানিকে। কারণ তারা তাদের নারী কর্মীদের স্কার্ট পরে কর্মস্থলে আসতে উৎসাহিত করছে।

টেটপ্রফ নামের ওই কোম্পানিটি অ্যালুমিনিয়াম উৎপাদন করে থাকে। আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত তারা ‘ফেমিনিটি ম্যারাথন’ প্রচারণা চালাবে। এটি তাদের নারী কর্মীদের স্কার্ট বা এ ধরণের পোশাক পরে অফিসে আসতে উদ্বুদ্ধ করার প্রচারণা।

তারা বলছেন, যেসব নারী কর্মী স্কার্ট পরবে তাদের তারা নিয়মিত বেতনের বাইরেও অতিরিক্ত একশ রুবল বোনাস দেবে। স্কার্ট বলতে এখানে হাঁটু থেকে ৫ সেন্টিমিটারের বেশি বড় নয় এমন পোশাকের কথা বলছে তারা।

আর বোনাস পেতে হলে অফিসে এসে নিজের একটি ছবি তুলে পাঠাতে হবে কোম্পানিকে। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে। কেউ কেউ একে নারীদের বাজেভাবে উপস্থাপন বলে অভিযোগ করেছেন।

সুপরিচিত নারীবাদী ব্লগার ও সাংবাদিক জ্যালিনা মারশেঙ্কুলভাও এ নিয়ে কথা বলেছেন। তবে সব ধরনের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ওই কোম্পানি। তারা ২০১৪ সালের শীতকালীন অলিম্পিক ও ২০১৮ সালের ফুটবল বিশ্বকাপের মালামাল সরবরাহের কাজ পেয়েছিল।

কোম্পানির মুখপাত্র একটি রেডিও স্টেশনকে বলেন, আমরা আমাদের কাজের দিনগুলোকে উজ্জ্বল করতে চাই।
আমাদের টিমে ৭০ ভাগই পুরুষ। এখানে অনেক নারীই ট্রাউজার পরে আসে। আমরা আশা করছি আমাদের প্রচারণা নারীদের মধ্যে সচেতনতা আনবে যাতে করে তারা তাদের নারীত্বকে উপভোগ করতে পারেন।

অনেকেই টুইটারেও এর সমালোচনা করছেন। একজন লিখেছেন, শর্ট স্কার্ট পরার জন্য একশ রুবল বোনাস পেতে যিনি আসবেন তিনি পুরুষ নিয়ন্ত্রিত টিমকে উজ্জ্বল করবেন।

তবে কোম্পানির মুখপাত্র বলছেন, তাদের প্রধান নির্বাহী এটি চালু করেছেন যাতে কোম্পানিতে কাজ করা মেয়েরা তাদের মতো করেই অফিস করতে পারেন। তাদের কারও ছেলেদের মতো হেয়ার কাটের বা পোশাক পরার দরকার নেই। তাদের যা ইচ্ছে সেটাই তারা পরবে।

এসএইচ-০৪/০৪/১৯ (অনলাইন ডেস্ক)