হেলিকপ্টার চালিয়েছি ৩০ টাকায়!

প্রকাশিতঃ জুন ৬, ২০১৯ আপডেটঃ ৫:১৭ অপরাহ্ন

ঈদের দিন সকাল থেকেই বৃষ্টির হানা শুরু হয়। কিন্তু তাতে কি আনন্দ না করে শিশুরা থাকতে পারে? শিশুরা ঠিকই ভিড় জমিয়েছে বিনোদনকেন্দ্রে। বিমানবাহিনী জাদুঘরে সারি সারি উড়োজাহাজ। এ যেন যাত্রীর অপেক্ষায়, উঠে বসলেই পাখা মেলবে আকাশে। বিমানবন্দর বা রানওয়ে ভেবেও ভুল হয়ে যেতে পারে! কিন্তু এটি আসলে বিমানবাহিনীর জাদুঘর। এখানে শিশুরা মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত উড়োজাহাজে উঠছে। কেউবা হেলিকপ্টারে উঠছে। টিকেট মাত্র ৩০ টাকা! এনটিভি

যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে আসা শিশু আনিসা তাহসীন জাহীন ও ওয়াজিয়া আনঞ্জুম কায়নাত বায়না ধরেছে হেলিকপ্টারে উঠার। শিশুদের চাহিদা মেটাতে সঙ্গে আসা বাবা-মা হেলিকপ্টারে টিকেট কিনে উঠছেন। হেলিকপ্টার ও উড়োজাহাজে উঠে আনন্দে আত্মহারা দুই শিশু। তাও বসেছে একেবারে পাইলটের আসনে!

এ বিষয়ে শিশু আনিসা তাহসীন জাহিন বলে, আমি ৩০ টাকায় হেলিকপ্টারে উঠেছি, পাইলট হয়েছি! আমার খুব মজা লাগছে। অপর শিশু ওয়াজিয়া আনঞ্জুম কায়নাত বলে, আমিও বিমানে উঠেছি, ট্রেনে উঠেছি, খুবই ভালো লাগছে। ঈদে খুব মজা করছি। এসব শিশুদের মতো নাফিজ, আফিফ, রুবেল, রানাসহ অনেক শিশুই আনন্দ করছে এ জাদুঘরের বিভিন্ন রাইডে। কেউ বা বড় পুকুরে সাজানো নৌকা নিয়ে মেতে উঠেছে কেউ বা হাতির পিঠে!

যাত্রাবাড়ী থেকে দুই শিশুদের সাথে আসা অভিভাবক আমাতুল আলীম নুপূর বলেন, এ বছর গ্রামে যাইনি। তাই বাচ্চারা বাইরে যাওয়ার বায়না ধরেছে। এখানে মাত্র ৩০ টাকা দিয়ে হেলিকপ্টার ও বিমানে উঠা যায়।

বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসের সাক্ষী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বিমান জাদুঘর। জাদুঘরটিতে রয়েছে জাতীয় অহংকার ও স্মৃতি বিজড়িত উড়োজাহাজসমূহ। ১৯৭১-এর উত্তাল দিনগুলোতে স্বল্প সম্পদ আর জনবল নিয়ে ডিমাপুরে সম্পূর্ণ বৈরী পরিবেশে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী।

বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর এই গৌরবময় ঐতিহ্যের ইতিহাস, সাফল্য ও উন্নয়নের ক্রমবিকাশকে সংরক্ষণ এবং নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতেই ২০১৪ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বেগম রোকেয়া সরণি সংলগ্ন তেজগাঁও বিমানবন্দর রানওয়ের পশ্চিম পাশে মনোরম পরিবেশে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী জাদুঘর।

এসএইচ-১১/০৬/১৯ (অনলাইন ডেস্ক)