১৬ কোটি পাউন্ডের লটারি জেতার পর তাদের ৩৮ বছরের বিয়ে ভেঙ্গে গেল

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৯ আপডেটঃ ৫:৫৫ অপরাহ্ন

অর্থই সকল সুখের মূল কিংবা অর্থই অনর্থের মূল কোনটি সঠিক! তা না হলে ১৬১ মিলিয়ন পাউন্ডের লটারি জেতার পর শ্যাম্পেনের বোতল খুলে খুশির ফোয়ারা ছুটিয়ে দিয়ে চুটিয়ে এদেশ ওদেশ ভ্রমণ করতে শুরু করেছিল যারা, তারাই দাম্পত্য সম্পর্কটুকু ধরে রাখতে পারল না।

ইউরোমিলিয়ন লটারির পুরস্কার জিতেছিল ক্রিস্টিয়ানি একেএ ‘ক্রিস’ ও কলিন ওয়ের। আর দুই বছর গেলেই চারদশকের বিয়ে বার্ষিকী পালন করত ওরা। ২০১১ সালে স্কটল্যান্ডের আইশায়ারের লার্জস শহরের এই বাসিন্দা দম্পত্তির দাম্পত্যজীবনের কালই হয়ে ওঠে ওই লটারী বিজয়। কারণ লটারী জেতার পরই তারা ভিন্ন এপার্টমেন্টে থাকতে শুরু করে। দি সান

সম্পর্কে চিড় ধরার পর নানা ধরনের সন্দেহর ডালাপালা গজিয়ে উঠতে উঠতে শেষ পর্যন্ত তারা বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন করেছেন বলে জানান। এই গ্রীষ্মে তাদের সম্পর্ক পাকাপোক্ত হয়েই ছাড়াছাড়ি হয়ে যাচ্ছে।

প্রতিবেশিরাও বলতে শুরু করেছিল তাদের সম্পর্ক টিকবে না। অনেকে বিষয়টি লজ্জার বলছেন একারণে যে ৩৮টি বসন্ত এক সঙ্গে পার করার পর চোখে সরষে ফুল দেখার কোনো মানে হয় না। তাদের দুটি প্রাপ্তবয়স্ক সন্তানও রয়েছে।

অবশ্য দান খয়রাতে তারা কম যান না। লটারি পাওয়ার পর গ্লাসগোর প্যাট্রিক থিসেল এফসি বা স্কটিশ ন্যাশনালিষ্ট পার্টিকে ১০ লাখ পাউন্ড দানও করেছিলেন কলিন ওয়ের। এছাড়া কলিন তাদের ৩০ লাখ পাউন্ডের সাবেক বাড়িটি গত আগস্টে ক্রিস্টিয়ানিকে দিয়ে দিলে তা বিক্রিও করে দেয়া হয় কয়েক সপ্তাহের মধ্যে।

এসএইচ-২৪/৩০/১৯ (অনলাইন ডেস্ক)