গাড়ি থামিয়ে আহত তরুণীকে হাসপাতালে পাঠালেন মমতা

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৩, ২০১৯ আপডেটঃ ৭:১৩ অপরাহ্ন

সাধারণ মানুষের প্রতি সব সময়ই তাকে বেশ আন্তরিক দেখা যায়। নিজের জীবন-যাপনও বেশ সাধারণ। কোনো ধরনের বিলাসিতা তার জীবনে স্থান পায়নি। সব সময়ই সাধারণ মানুষের দুঃখ-কষ্টে এগিয়ে এসেছেন তিনি। আর সে কারণেই এখনও পশ্চিমবঙ্গে দীর্ঘদিন ধরেই মুখ্যমন্ত্রীর আসন দখল করে রেখেছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়।

বুধবারও আহত এক তরুণীকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন মমতা। পূজা উদ্বোধন করে ফেরার সময় দুর্ঘটনায় আহত হওয়া এক তরুণীকে রাস্তা থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী। বুধবার নিউ আলিপুরের দুর্গাপুর সেতুর কাছে এই ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার বিকেলে সুরুচি সঙ্ঘের পূজা উদ্ধোধন করতে গিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিকাল ৫টার পরে তিনি পূজা উদ্ধোধন করে ফিরছিলেন। হঠাৎ সবাইকে চমকে দিয়ে দুর্গাপুর সেতুর কাছে নিজের গাড়ি থামিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী।

পুলিশ জানিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তারক্ষীরা দেখতে পান যে গাড়ির সামনে থাকা একটি বাসে উঠতে গিয়ে পড়ে গিয়েছেন এক তরুণী। নিরাপত্তারক্ষীদের কাছ থেকে ঘটনার কথা শুনে সাথে সাথেই গাড়ি থামিয়ে দেন মমতা।

সঙ্গে সঙ্গে পেছনের গাড়ি থেকে ছুটে আসেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। পুলিশও আসে। মুখ্যমন্ত্রী পুলিশকে নির্দেশ দেন, আহত ওই তরুণীকে দ্রুত উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে। পুলিশ ওই তরুণীকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করে।

এরপর আহত তরুণীকে ওই এলাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পুলিশ জানিয়েছেন, ওই তরুণীর নাম শুভ্রা দাস। স্থানীয় কলেজের শিক্ষার্থী শুভ্রা হাওড়ার দাশনগরের বাসিন্দা। বন্ধুদের সঙ্গে পূজা দেখতে এসেছিলেন তিনি। পুলিশ জানিয়েছে, ওই তরুণীর চিকিৎসার সব ব্যবস্থা করে তারপর ঘটনাস্থল থেকে রওনা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। পুলিশ ওই তরুণীর পরিবারের সদস্যদের খবর দিয়েছে।

এসএইচ-১৯/০৩/১৯ (অনলাইন ডেস্ক)