২৬ টাকায় দিন চলতো, এখন তিনি কোটিপতি!

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২, ২০১৯ আপডেটঃ ৭:১৯ অপরাহ্ন

খাওয়ার জন্য দিনে বরাদ্দ ছিল মাত্র ২৬ টাকা। ভাইকে বাঁচাতে তাই দিয়ে গত পাঁচ বছর ধরে দিনাতিপাত করেছেন। উ হুয়ান নামের বছর ২৪ বছর বয়সী ওই চীনা তরুণী মরিচ দিয়ে ভাত খেয়ে পড়াশোনাও চালিয়ে গেছেন। তার জীবনযুদ্ধের এই করুণ গল্প এখন অনেকের মুখে মুখে।

উ হুয়ান যখন স্কুলে পড়তেন তখনই তার মা-বাবা মারা যান। ছোট ভাইকে নিয়ে তারপরই তার জীবন যুদ্ধের শুরু। ২৪ বছর বয়স হলেও তার ওজন মাত্র ২০ কেজি আর তার ছোট ভাইটিও মানসিক রোগী। কিন্তু মা-বাবার আদরে ভাইকে আগলে রাখার গুরুদায়িত্ব পড়ে তার কাঁধে।

মানসিক রোগী ভাইয়ের চিকিৎসা আর নিজের পড়াশোনার খরচ চালিয়ে প্রতিদিনের খাওয়ার জন্য অবশিষ্ট থাকতো ২৬ টাকা। এই টাকায় তাকে সারা মাস নিজের ভাইয়ের খাওয়ার খরচ চালাতে হতো। তাই চাল ফুটিয়ে মরিচ দিয়ে খাওয়া ছাড়া অন্য কোনও উপায় ছিল না। এমন করেই তিনি পাঁচ বছর চালিয়েছেন।

সম্প্রতি হুয়ান শ্বাসকষ্ট নিয়ে হুয়ান চিকিৎসকের কাছে যান। চিকিৎসকরা তো তাকে দেখে অবাক। কেননা তার ওজন মাত্র ২০ কেজি। দীর্ঘদিন ধরে শুধু চাল আর মরিচ খাওয়ার ফলে অপুষ্টির সঙ্গে তার কিডনি ও হার্টেরও সমস্যা দেখা দিয়েছে।

জীবনযুদ্ধে লড়াকু এক নারীর এমন গল্প তারপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে (ভাইরাল হয়) পড়ে। সমবেদনা জানাতে অনেক মানুষ তাদের সাহায্যে এগিয়ে আসেন। একদল সংগঠিত সমব্যথী মানুষ মিলে তাদের জন্য প্রায় ৮ লাখ ইউয়ান সংগ্রহ করেছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় কোটি টাকার সমান।

চীনের গুইঝৌ প্রদেশে উ হুয়ানের বাড়ি। বাবা-মা মারা যাওয়ার পর উ আর তার ছোট ভাইয়ের খরচ চালাচ্ছিলেন তাদের নানি। তার মৃত্যুর পর চাচা-ফুপুর কাছ থেকে মাসে ৩শ’ ইউয়ানে ভাইকে নিয়ে দিন কাটছিল হুয়ানের। সরকারের কাছ থেকে এই দুই ভাই-বোন কিছু ভর্তুকি পেলেও তা ছিল খুবই কম।

এসএইচ-১৮/০২/১৯ (অনলাইন ডেস্ক)