ককপিটে যাত্রী, পাইলট আজীবন নিষিদ্ধ

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ৫, ২০১৯ আপডেটঃ ৭:১৪ অপরাহ্ন

নিজের আসনে (ককপিটে) এক যাত্রীকে বসার সুযোগ করে দিয়ে সারাজীবনের মতো বিমান চালানোর নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছেন চীনের এক পাইলট। ককপিটে বসে ওই নারী ছবি তুলে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করেন। ছবিটি ভাইরাল হওয়ায় সংশ্লিষ্ট বিমান পরিবহন সংস্থা পাইলটের বিরুদ্ধে এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলো।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ছবিটি তোলা হয়েছিল গত জানুয়ারিতে। চীনের গুইলিন শহর থেকে ইয়াংঝুগামী এয়ার গুইলিনের একটি ফ্লাইটে এক নারী নাস্তা খেতে খেতে আরাম করে পাইলটের আসনে বসে ছবিটি তোলেন। সম্প্রতি চীনা টুইটার ‘উইবো’তে ওই ছবি ছড়িয়ে পড়লে এমন পদক্ষেপ নেয়া হলো।

এয়ার গুইলিন এক বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, সংশ্লিষ্ট ফ্লাইটের পাইলট বিমান নিরাপত্তার বিধিমালা লঙ্ঘন করেছেন। তবে ছবিটি কখন তোলা হয়েছে এ সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। দেশটির অনেক পাইলট অবশ্য দাবি করছেন, ককপিটের ওই নারীর ছবিটি বিমান মাঝ আকাশে থাকা অবস্থায় তোলা হয়েছে।

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম দ্য গ্লোবাল টাইমসের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, গত ৪ জানুয়ারি গুইলিন থেকে ইয়াংঝুড়গামী এয়ার গুইলিনের জিটি-১০১১ ফ্লাইটে ঘটনাটি ঘটেছে। তবে এতদিন ধরে তা অগোচরেই ছিল। গত রোববার তা চীনের মাইক্রোব্লগিং সাইট উইবোতে ব্যাপকবাবে ছড়ালে পাইলটের বিরুদ্ধে পড়লে ব্যবস্থা নেয় কর্তৃপক্ষ।

ভাইরাল হওয়া ওই পোস্টে এক নারী বিমানটির ককপিটে বসে হাতে বিজয় চিহ্ন দেখাচ্ছেন। বসে ছিলেন পাইলটের জন্য নির্ধারিত আসন। এসময় তার হাতে ছিল নাস্তা। তিনি ওই ছবি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করে লিখেছেন, ‘ক্যাপ্টেনকে ধন্যবাদ, (আমি) খুব খুশি।’

ঘটনাটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আরও বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাকেও অনির্দিষ্টকালের জন্য বরখাস্ত করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্তেরও ঘোষণা দিয়ে চীনের এই বিমান পরিবহন সংস্থাটি বলছে, ‘যাত্রীদের নিরাপত্তাকেই সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেই আমরা। অপেশাদারি আচরণের ক্ষেত্রে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি মেনে চলে এয়ার গুইলিন।’

এসএইচ-২০/০৫/১৯ (অনলা্ইন ডেস্ক)