পুরুষ সেজে মেয়েকে বড় করছেন এক মা!

প্রকাশিতঃ ফেব্রুয়ারী ১৫, ২০২০ আপডেটঃ ৪:১৮ অপরাহ্ন

মা’ ছোট্ট এই শব্দটার মধ্যে লুকিয়ে আছে অকৃপণ ও নিঃস্বার্থ ভালোবাসার অসীম ও আশ্চর্য রকমের এক ক্ষমতা। সন্তানের জন্য মায়ের আত্মত্যাগের কথা কে না জানে? এ জগতে একমাত্র মা-ই সন্তানের জন্য নিজের জীবন বাজি রাখতে পারেন। তেমনি একটি বিরল ঘটনা ঘটেছে পাকিস্তানের।

পুরুষ সেজে এক মা তার নিজের মেয়েকে পালন করছেন। লাহোরের বাসিন্দা ফারহিন এ লড়াইয়ে তাকে সাজতে হয়েছে ছদ্মবেশে পুরুষ, পরতে হয়েছে পুরুষের মতো পোশাকও।

জানা গেছে, লাহোরের আনারকলি বাজারে একটি দোকান চালান ফারহিন। ৯ বছরের মেয়েকে নিয়েই জগৎ তার। পরিবারে কোনও পুরুষ উপার্জনকারী নেই। ফারহিনকেই পরিশ্রম করতে হয় উদয়াস্ত।

কিন্তু বাজারের মতো জনসমাগমপূর্ণ এলাকায় একজন নারী হিসেবে নিরাপদে কাজ করা মোটেই সহজ নয় সেখানে। তাই ফারহিন চুল কেটে ফেলেছেন ছোট করে। প্যান্ট পরে, পুরুষ সেজেই রোজ দোকানে বসেন তিনি। সারাদিন কাজ করে হোস্টেলে ফিরে পোশাক বদলান। ফারহিন একটি হোস্টেলেই থাকেন মেয়েকে নিয়ে।

শুধু তাই নয় সারাদিন বাজারে ব্যবসা করার পরে, সন্ধা বেলায় ট্যাক্সিচালক হিসেবে কাজ করেন ফারহিন। পাকিস্তানের মতো দেশে রেখানে নারীস্বাধীনতার আলো এখনও বেশ আবছা, সে দেশে ‘সিঙ্গল মাদার’ শব্দবন্ধটিই বিরল এবং চ্যালেঞ্জিং। সেই চ্যালেঞ্জের মুখেই লড়াই করছেন লাহোরের বাসিন্দা ফারহিন।

এসএইচ-০৯/১৫/২০ (অনলাইন ডেস্ক)