বাড়িতেই পৌঁছে যাচ্ছে রেশন-ভাতা

প্রকাশিতঃ মার্চ ২৬, ২০২০ আপডেটঃ ১২:১১ অপরাহ্ন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছে ভারত। এ পরিস্থিতির মধ্যেই দারুণ ব্যবস্থা নিয়েছে উড়িষ্যা, উত্তর প্রদেশ ও অন্ধ্র প্রদেশের সরকার। সেখানে রেশন আনতে কাউকে দোকানে লাইন দিতে হচ্ছে না। সরকার নিযুক্ত স্বেচ্ছাসেবকরা প্রত্যেকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিনামূল্যেই রেশন পৌঁছে দিচ্ছেন।

মঙ্গলবার রাতে উত্তর প্রদেশ সরকার ঘোষণা করেছিল, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে ঘরে ঘরে রেশন পৌঁছে দেবে প্রশাসন। তবে বুধবার সকাল থেকেই সেই কাজ শুরু করে দিয়েছে উড়িষ্যা সরকার। রাজ্যটির বিভিন্ন অঞ্চলে বাড়ি বাড়ি গিয়ে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য পৌঁছে দিচ্ছেন স্বেচ্ছাসেবকরা।

উড়িষ্যায় প্রতি পরিবারে চাল, ডাল, আটা, চিনি, আলুর মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। রেশন কার্ড দেখে নির্দিষ্ট পরিমাণ সামগ্রী তুলে দেয়া হচ্ছে পরিবারগুলোর হাতে। যে বাড়িতে পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশু রয়েছে,সেখানে দুধও পৌঁছে দিচ্ছে রাজ্য সরকার। পাশাপাশি, হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের প্রত্যেককে এককালীন ১৫ হাজার রুপি দেয়ারও ঘোষণা দিয়েছে তারা।

এদিকে, বুধবার অন্ধ্র প্রদেশ সরকার জানিয়েছে, করোনার এই মৌসুমে কাউকে দোকানে গিয়ে রেশন আনতে হবে না। ২৯ মার্চ বাড়ি বাড়ি গিয়ে বরাদ্দ রেশন পৌঁছে দেবেন স্বেচ্ছাসেবকরা। সেখানে চালের সঙ্গে এক কেজি করে ডালও দেয়া হবে সবাইকে। এছাড়া, এ মাসেই এপ্রিলের রেশনও পাঠিয়ে দেয়া হবে সবার কাছে।

লকডাউন চলাকালে রেশন কার্ড থাকা প্রতিটি পরিবারকে এক হাজার রুপি ভাতা দেয়ারও ঘোষণা দিয়েছে অন্ধ্রের সরকার। আগামী ৪ এপ্রিল বাড়ি বাড়ি এই অর্থ পৌঁছে দেয়া হবে।

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৭০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িছে ৬০৬ জন। এদের মধ্যে অন্তত ১০ জন মারা গেছেন।

এসএইচ-০২/২৬/২০ (অনলাইন ডেস্ক)