শিশু জয়নবকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা!

প্রকাশিতঃ জানুয়ারী ২৩, ২০১৮ আপডেটঃ ৫:৫৬ অপরাহ্ন

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে সাত বছরের শিশু জয়নব আনসারীকে ধর্ষণ ও হত্যার মূল সন্দেহভাজন ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে দেশটির পুলিশ। মঙ্গলবার পাঞ্জাবের শীর্ষ এক কর্মকর্তা সন্দেহভাজন ধষককে গ্রেফতারের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পাঞ্জাবের কাসুরের বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজের কয়েকদিন পর গত ৯ জানুয়ারি শিশু জয়নবের মরদেহ পাওয়া যায় ময়লার ভাগাড়ে। এ শিশুর ধর্ষণের ঘটনার পর স্থানীয়দের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে পাঞ্জাব। জয়নবের ময়নাতদন্তের পর চিকিৎসকরা বলেছেন, শিশুটিকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

জেলা পুলিশের এক কর্মকর্তা কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে বলেছেন, সন্দেহভাজন ধর্ষকের নাম ইমরান। জয়নবের এলাকার বাসিন্দা সে। শিশু জয়নবকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ স্বীকার করেছে। এছাড়া ধর্ষণের আলামতের সঙ্গে তার ডিএনএ’র নমুনা মিলে গেছে।

আরও খবর: গণধর্ষণের পর মেলেনি সুবিচার, কিশোরীর আত্মহত্যা

এদিকে, পাকিস্তানি সংবাদ মাধ্যম বলছে, জয়নবকে ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে গ্রেফতারকৃত সন্দেহভাজন ইমরানের বাড়ি ঘেরাও করে রেখেছে স্থানীয়রা। কাসুরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে।

ধর্ষকের বাড়ির আশ-পাশে স্থানীয়রা জড়ো হচ্ছেন বলে ডন জানিয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে স্থানীয়দের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছে পুলিশ।

পাঞ্জাব প্রদেশের সরকারি মুখপাত্র মালিক আহমেদ খান বলেছেন, পাকপত্তন থেকে সন্দেহভাজন ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারি এড়াতে সে দাড়ি কেটে ফেলেছিল।

বিএ-১৫/২৩-০১ (আন্তর্জাতিক ডেস্ক, তথ্যসূত্র: আলজাজিরা, ডন)