ইসরায়েলি সেনাকে চড় মারা সেই ফিলিস্তিনি কিশোরীর জেল

প্রকাশিতঃ মার্চ ২২, ২০১৮ আপডেটঃ ৭:১১ অপরাহ্ন

ইসরায়েলি সেনা সদস্যকে চড় মারার অপরাধে ফিলিস্তিনি কিশোরী আহেদ তামিমিকে (১৭) ৮ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে সামরিক আদালত। একইসঙ্গে তাকে ৫ হাজার শেকেলস (ইসরায়েলি মুদ্রা) জরিমানা করা হয়েছে।

রামাল্লায় গত ২০ ডিসেম্বর আহেদ তামিমি বাড়িতে দুই ইসরায়েলি সেনা চড়াও হন। সে সময় তামিমির সঙ্গে তাদের বিতর্ক বাঁধে। এক পর্যায়ে এক ইসরায়েলি সেনাকে চড় মারেন তামিমি। এরপর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আদালত ইসরায়েলি সেনাকে চড় মারার দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপ করার বিষয়টি অপরাধ হিসেবে বিবেচনা করেছে।

আরও খবর: ‘যদি কারও বুকের পাটা থাকে, মুখোমুখি হোন’ : এরদোয়ান

তামিমির বিচার হয়েছে গোপন আদালতে। ইসরায়েলের সামরিক আদালত তার বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগ আনে । ইসরায়েলি সেনাকে লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ তার মধ্যে একটি।

তামিমিকে গ্রেফতারের পর আন্তর্জাতিক বিশ্বে তার মুক্তির দাবি ওঠে। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রে ইহুদি সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে তার মুক্তির দাবি তোলা হয়। বিভিন্ন সংগঠন তাকে জোয়ান অব আর্কের সঙ্গে তুলনা করে। অনলাইন প্রতিবাদে তার মুক্তির দাবিতে ১৭ লাখ মানুষ স্বাক্ষর করেন।

তামিমির আইনজীবি গ্যাবি ল্যাস্কি বলেন, যখন আদালত সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে বন্ধ দরজার পেছনে বিচারকাজ চলবে, কিন্তু তো ততক্ষণেতো জনসমুক্ষে নানা ধরনের আলোচনা হয়ে গেছিল। আমরা বুঝতে পারি যে আহেদের ন্যায় বিচার পাওয়ার সম্ভাবনা নেই।

বিএ-১৮/২২-০১ (আন্তর্জাতিক ডেস্ক)