দাসত্ব থেকে ৪৩ মেক্সিকানকে মুক্তি দিল কানাডা পুলিশ

প্রকাশিতঃ ফেব্রুয়ারী ১২, ২০১৯ আপডেটঃ ৫:১৭ অপরাহ্ন

প্রতারণার শিকার হয়ে কানাডার অন্টারিও প্রদেশে আটকে ছিলেন ৪৩ মেক্সিকান নাগরিক। দেশটির বিভিন্ন হোটেলে প্রায় বিনা মজুরিতে কাজ করতে বাধ্য করা হয়েছিল তাদের। সে অবস্থা থেকে তাদের মুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ।

পাচারকারীরাই প্রলুব্ধ করে তাদের এখানে নিয়ে এসেছে। এদের মধ্যে বেশিরভাগই পুরুষ।

বিপুল পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে মেক্সিকানদের কানাডাতে পড়াশোনা, কাজ এবং স্থায়ী নাগরিকত্বের নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু কানাডাতে আসার পর তাদের মধ্য এবং পূর্ব অন্টারিওতে জোর করে বন্দি রাখা হয়। সেখানকার হোটেলগুলিতে হাউসকিপার হিসেবে কাজ করার জন্য বাধ্য করা হয়েছিল বলে জানায় অন্টারিও পুলিশ।

অন্টারিও পুলিশের ডেপুটি কমিশনার রিক বার্নাম সাংবাদিকদের বলেন, মানবপাচার আধুনিক যুগের দাসত্ব। তাদের শোষণ করাই এই অপরাধের মূল বিষয়।

এ ঘটনায় অন্টারিও প্রদেশের ব্যারি শহরের দু’টি ক্লিনিং কোম্পানির কর্মকর্তা যারা সেখানকার হোটেরগুলোর সঙ্গে কাজ করে তাদের জড়িত থাকার ব্যাপারে সন্দেহ করা হচ্ছে। তবে এখনও কাউকে আটক করা হয়নি।

ব্যারি পুলিশের প্রধান কিম্বারলি গ্রিনউড বলেন, আমাদের সম্প্রদায়ের মধ্যেই এসব ঘটনা ঘটছে, তা আমাদের ধারণারও বাইরে ছিল।

এসএইচ-১৯/১২/১৯ (আন্তর্জাতিক ডেস্ক)