যৌন নিপীড়নের দায়ে জাতিসংঘ কর্মকর্তার ১৫ বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশিতঃ জুলাই ৯, ২০১৯ আপডেটঃ ৯:২৯ অপরাহ্ন

শিশু যৌন নিপীড়নের দায়ে অভিযুক্ত জাতিসংঘের সাবেক এক কর্মকর্তাকে কারাদণ্ড দিয়েছেন নেপালের একটি আদালত। দুই শিশুকে নিপীড়নের দায়ে কানাডীয় এই কর্মকর্তাকে পাঁচ লাখ রূপি জরিমানাও করা হয়েছে। মঙ্গলবার দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ৬২ বছর বয়সী পিটার জন ডালগ্লিশ নামের কানাডার ওই নাগরিক জাতিসংঘের মানবিক ত্রাণ তৎপরতা বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের সাবেক কর্মকর্তা। গত মাসে পৃথক দুটি যৌন হয়রানির মামলায় অভিযুক্ত করা হয় তাকে। সোমবার নেপালের একটি আদালত কানাডীয় এই নাগরিককে পৃথকভাবে ৯ ও ছয় বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।

নেপালের জেলা আদালতের কর্মকর্তা ঠাকুর তৃতাল বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেন, ১২ বছর বয়সী এক ছেলে শিশুকে যৌন নিপীড়নের দায়ে ডালগ্লিশকে ৯ বছর এবং ১৪ বছরের এক শিশুকে যৌন নিপীড়নের দায়ে সাত বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

তৃতাল বলেন, অভিযুক্ত ডালগ্লিশ মোট ১৬ বছর কারাদণ্ড ভোগ করবেন নাকি ৯ বছর পর মুক্তি পাবেন সেব্যাপারে এখনো আদালত সিদ্ধান্ত নেয়নি। একই ধরনের অভিযোগের ক্ষেত্রে অনেক সময় সাজা কমানো হয়, তবে এটি নির্ভর করে আদালতের ওপর।

একই সঙ্গে নিপীড়নের শিকার দুই শিশুকে ৫ লাখ নেপালি রূপি ক্ষতিপূরণ দিতে জাতিসংঘের সাবেক এই কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গত বছরের এপ্রিলে রাজধানী কাঠমাণ্ডুর কাছের কাভরেপালানচক জেলা থেকে জাতিসংঘের এই কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয়। নেপালে কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো তাকে গ্রেফতার করে।

ডালগ্লিশকে গ্রেফতারের সময় তার বাসা থেকে ওই দুই শিশুকে উদ্ধার করা হয় বলে তদন্তকারীরা জানান। তবে ডালগ্লিশ তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন। এ ব্যাপারে তার আইনজীবীর মন্তব্য জানা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে এএফপি।

মানবিক এই কর্মী ২০১৬ কানাডার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক পদক অর্ডার অব কানাডা পান। পথ শিশু, শিশু শ্রমিক ও যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশগুলোতে শিশুদের নিয়ে কাজ করেন তিনি। ১৯৮০ সালে স্ট্রিট কিডস ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা গড়ে তোলেন ডালগ্লিশ। পরে জাতিসংঘের সেভ দ্য চিলড্রেনের সঙ্গে কাজ করেন তিনি।

এসএইচ-১৪/০৯/১৯ (আন্তর্জাতিক ডেস্ক)