বরিসের পার্লামেন্ট স্থগিতকে ‘বেআইনি’ বলে আদেশ স্কটিশ আদালতের

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ আপডেটঃ ৮:৩১ অপরাহ্ন

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পার্লামেন্ট স্থগিত করার সিদ্ধান্তকে ‘বেআইনি’ বলে আদেশ জারি করেছেন স্কটল্যান্ডের সর্বোচ্চ আদালত। এর আগে ব্রেক্সিট ঘিরে অচলাবস্থা কাটাতে পার্লামেন্ট স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

বুধবার স্কটল্যান্ডের আদালতের তিন বিচারকের একটি প্যানেল এ আদেশ জারি করেন।

আদেশে বিচারকরা জানান, বরিস জনসন অসমীচীন উদ্দেশ্যে পার্লামেন্টকে কোণঠাসা ও রানিকে বিভ্রান্ত করেছেন বলে তারা মনে করেন। খুব শিগগির প্রোরোগোশেন বাতিল বিষয়ক এক নির্দেশ জারি করা হবে বলে জানান তারা।

এর আগে ‘প্রোরোগেশন’ (সরকারের যে সিদ্ধান্তে আইনপ্রণেতাদের মতামত দেওয়ার সুযোগ থাকে না এমন ব্যবস্থা) ব্যবস্থার মাধ্যমে ১০ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত ব্রিটিশ পার্লামেন্ট অধিবেশন স্থগিত করেন বরিস জনসন।

সে সময় বরিসের প্রোরোগোশেন পদক্ষেপ বেআইনি নয় বলে জানান আদালত। কিন্তু স্কটিশ আদালতের নতুন এ আদেশের মধ্য দিয়ে ওই আদেশ বাতিল হয়ে গেল।

আগামী ৩১ অক্টোবর ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বিচ্ছেদ বা ব্রেক্সিট কার্যকর হওয়ার দিনক্ষণ নির্ধারিত হয়ে আছে। কট্টর ব্রেক্সিটপন্থি বরিস চুক্তি হোক বা না-হোক ওই দিনই ব্রেক্সিটের বাস্তবায়ন চান।

বিরোধীরা যেন সে কাজে বাগড়া দিতে না পারে, তা ঠেকাতেই ১০ সেপ্টেম্বর থেকে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত পার্লামেন্ট স্থগিতের বুদ্ধি কষেন বরিস। এতে করে চুক্তিবিহীন বিচ্ছেদ ঠেকাতে বিরোধীরা হাতে পর্যাপ্ত সময় পাবে না।

এদিকে আদালতের নতুন এ আদেশের বিরুদ্ধে বরিস সরকার লন্ডনের সুপ্রিম কোর্টে আপিল করবে বলে জানিয়েছে।

এসএইচ-২২/১১/১৯ (আন্তর্জাতিক ডেস্ক)