পিতৃত্বকালীন ছুটিতে যাচ্ছেন জাপানি মন্ত্রী

প্রকাশিতঃ জানুয়ারী ১৬, ২০২০ আপডেটঃ ৯:০৯ অপরাহ্ন

জাপানের পরিবেশ বিষয়ক মন্ত্রী শিনজিরো কইজুমি ঘোষণা দিয়েছেন তিনি পিতৃত্বকালীন ছুটি নেবেন। কোনো পুরুষের এভাবে পিতৃত্বকালীন ছুটি নেয়ার ঘোষণা দেয়া জাপানে খুব একটা প্রচলিত নয়। আর কোনো মন্ত্রীর এ ছুটি নেয়ার নজির তো নেই-ই।

কইজুমি বলছেন তার সন্তান পৃথিবীর আলো দেখার প্রথম মাসের মধ্যে দু’সপ্তাহের ছুটিতে যেতে চাচ্ছেন তিনি। চলতি মাসের শেষদিকেই তার সন্তান জন্ম নিতে পারে।

যেমনটা আলোচনা চলছে অর্থাৎ শেষ পর্যন্ত যদি কইজুমি এ ছুটি নেন, তবে তিনিই হবেন প্রথম কোনো জাপানি মন্ত্রী যিনি পিতৃত্বকালীন ছুটি নিলেন।

জাপানের পুরুষ এবং নারী প্রত্যেকেই সন্তানের জন্ম উপলক্ষে কাজ থেকে এক বছর পর্যন্ত বিরতি নিতে পারেন, অর্থাৎ এক বছরের পর্যন্ত ছুটি নেয়ার বিধান তাদের রয়েছে। কিন্তু কাজের চাপের কারণে ২০১৮ সালে মাত্র ৬ শতাংশ বাবা এ ছুটি নিয়েছেন, মায়েদের ক্ষেত্রে এ হার ৮২ শতাংশ।

৩৮ বছর বয়সী কইজুমি সাংবাদিকদের বলেছেন, সন্তান জন্মদানের পর মায়েদের যে সময়টা সবচেয়ে কঠিন যায়, সেই সময়টাতে দু’সপ্তাহের ছুটি নেবেন তিনি। তবে তিনি তার দাফতরিক কাজকে গুরুত্ব দেবেন সবার আগে। আরও বেশি ইমেইল ব্যবহার করে ও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কাজ চালিয়ে যাবেন বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি। তবে সংসদ অধিবেশনের মতো গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্টগুলোতে তিনি উপস্থিত থাকবেন।

কইজুমি পিতৃত্বকালীন ছুুটি নেবেন বলে গতবছর প্রথম ঘোষণা দেন। এরপর থেকেই বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়।

শিনজিরো কইজুমিকে জাপানের রাজনীতির উদিয়মান তারকা বলে মনে করা হয়। জাপাানের জনপ্রিয় সাবেক প্রধানমন্ত্রী জুনিচিরো কইজুমির দ্বিতীয় ছেলে তিনি।

এসএইচ-২২/১৬/২০ (আন্তর্জাতিক ডেস্ক)