বজ্রপাতে পাঁচ জেলায় প্রাণ গেল ১০ জনের

বজ্রপাতে দেশের পাঁচ জেলায় ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (৭ জুন) দুপুরের পর থেকে বিকেল পর্যন্ত পৃথক পৃথক স্থানে এসব ঘটনা ঘটে।

এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জে তিনজন, নওগাঁয় তিনজন, নাটোরে দুজন, ঠাকুরগাঁওয়ে একজন ও চট্টগ্রামে একজন মারা গেছেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার আলিডাঙ্গা ও দক্ষিণ পাঁকা গ্রাম এবং ভোলাহাট উপজেলার বড়গাছি গ্রামে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

মৃতরা হলেন- শিবগঞ্জ পৌরসভার আলিডাঙ্গা গ্রামের সুভাষ বোকতের স্ত্রী ববি বোকত (২২) এবং শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের দক্ষিণ পাঁকা গ্রামের এরশাদ আলীর মেয়ে কবিতা খাতুন (১০) এবং ভোলাহাট উপজেলার জামবাড়িয়া ইউনিয়ন এর বড়গাছি-হঠাৎপাড়া গ্রামের এসলামের মেয়ে আমেনা খাতুন (১০)।

নওগাঁর পত্নীতলা ও মান্দা উপজেলায় বজ্রপাতে নারীসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

মৃতরা হলেন- পত্নীতলা উপজেলার পাটিচরা ইউপির গাহন মধ্যপাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের মেয়ে মনিকা খাতুন (৩২), একই ইউপির নাগরগোলা গ্রামের নব মুসলিম খাদিমুল ইসলাম (৪০) ও মান্দায় উপজেলার ভোলাগ্রাম গ্রামের ফইমউদ্দিন মন্ডলের ছেলে শামসুল আলম (৩৪)।
পত্নীতলা থানার ওসি মোজাফফর হোসেন ও মান্দা থানার ওসি মোজ্জামেল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নাটোরের গুরুদাসপুর ও নলডাঙ্গায় উপজেলায় বজ্রপাতে দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

মৃতরা হলেন- গুরুদাসপুর উপজেলার আনন্দনগর গ্রামের সাদ্দাক আলীর স্ত্রী আবেরা বেগম (৪০) ও নলডাঙ্গা উপজেলার পীরগাছার কোমরপুর শাহ পাড়ার লুৎফর আলীর ছেলে কামরুল ইসলাম (৩০)।

এছাড়া ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার জাবরহাট ইউনিয়নে লিপি আক্তার নামে বজ্রপাতে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে ফুটবল খেলে বাড়িতে ফেরার পথে বজ্রপাতে জয়নাল আবেদিন নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।

এআর-০৫/০৭/০৬ (আঞ্চলিক ডেস্ক)