নিয়মিত যৌনতা আপনার এই জিনিসটা বাড়ায়

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ আপডেটঃ ৩:২৮ অপরাহ্ন

বিজ্ঞানীরা বলেন নিয়মিত যৌনতার ফলে হৃদযন্ত্র ভাল থাকে। অনেক রোগও দূরে থাকে। শুধু শারীরিক নয়, মানসিক দিক থেকেও সুস্থ রাখে যৌনতা। সম্পর্ক দৃঢ় করে, ঘুম গভীর হতে সাহায্য করে, রক্তসঞ্চালন ঠিক রাখে; আরও কত কী! কিন্তু এইসব শান্তি পেতে গেলে যদি দেহের ওজন বেড়ে যায়, তাহলেই তো মুশকিল। একদিক সামলাতে গিয়ে অন্যদিক থেকে ফাঁপড়ে পড়তে হবে।

সত্যিই কি নিয়মিত সেক্স করলে দেহের ওজন বৃদ্ধি পায়? লোকে তো তাই বলে। বলে, বিয়ের পর নাকি মেয়েরা মোটা হয়ে যায়। পরোক্ষভাবে এটাই বলা হয় যে, বিয়ের পর শারীরিক সম্পর্ক হয়, আর তাতেও ওজন বৃদ্ধি ঘটে মেয়েদের। কিন্তু এই ধারণা সর্বৈব মিথ্যে। যৌনতার ফলে কখনও ওজন বাড়ে না।

বরং সেক্স হরমোনের সমতা না হলে তা দেহের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলে। তবে নিত্য সেক্সের সঙ্গে এর কোনও সম্পর্ক নেই। মহিলাদের ক্ষেত্রে এটি বয়স, ঋতুস্রাব ও মেনোপজের উপর নির্ভর করে। ইসট্রোজেন, প্রোজেস্টেরনের মতো সেক্স হরমোনগুলির অস্থিতিশীলতা দেহের ওজন বাড়ায়।

তবে বিয়ের পর যে ওজন বৃদ্ধি হয়, সেকথা মিথ্যে নয়। তবে শুধু মেয়েদের ক্ষেত্রে যে ওজন বাড়ার কথা বলা হয়, তা অর্ধেক সত্য। ছেলেদেরও বিয়ের পর ওজন বাড়ে। তবে সেক্সের জন্য কিন্তু ওজন বাড়ে না।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, বিয়ের পর ওজন বাড়ার একমাত্র কারণ মানসিক শান্তি। বিয়ে মানেই একটি সম্পর্কে স্থিতিশীলতা, নিরাপত্তা। আর এটার ফলেই মানসিক শান্তি আসে। তা সে যতই সবাই বিয়ের পর শান্তি নষ্ট হয়ে যাওয়ার হিড়িক তুলুক না কেন। একাধিক পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, যে সব ব্যক্তিরা কোনও সম্পর্কে থাকে, তারা সিঙ্গল মানুষের তুলনায় বেশি খায়।

অনেকে আবার এও বলে সেক্স নাকি দেহের ওজন কমায়। এটি কিয়দাংশে সত্যি। যদি দেহের আকার ও মজা একসঙ্গে পেতে হয় তবে যৌনতার জুড়ি মেলা ভার। দেহের অতিরিক্ত ক্যালোরি ঝরাতে সাহায্য করে সেক্স। সঙ্গমের সময় এনার্জি ক্ষয় হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, এর ফলে প্রতি আধ ঘণ্টায় ১০০ থেকে ৩০০ ক্যালোরি পর্যন্ত দেহ থেকে ঝরে যায়।

তবে ওজন যে হ্রাস হবেই, এমন কোনও বাধ্যবাধকতা নেই। অনেক সময় দেখা গিয়েছে, নিয়মিত যৌনতা করলে অনেক সময় অনেকের ওজন কমে না। আবার এমনও হয় যে কেউ টানা আধ ঘণ্টা সেক্স করল না। অনেক সময় সেক্স পোজিশনের উপরেও এসব নির্ভর করে। আবার যদি কেউ নিজে শান্ত থাকে, যাবতীয় কসরৎ তার পার্টনার করে যায়, তাহলে নিঃসন্দহে তার ক্যালোরি কম ক্ষয় হবে। সেক্ষেত্রে ওজন কমার সম্ভাবনাও কমে যাবে।

আরএম-০১/০৬/১২ (লাইফস্টাইল ডেস্ক, তথ্যসূত্র: সংবাদপ্রতিদিন)