ত্বকের কালচে ভাব দূর করতে একটি উপাদানই যথেষ্ট

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ৬, ২০১৯ আপডেটঃ ৩:৩৩ অপরাহ্ন

রান্নাঘরের এই উপাদানটি সুস্বাস্থ্য রক্ষায় একটি মোক্ষম দাওয়াই। এর স্বাস্থ্যগুণ সম্পর্কে বলে শেষ করা যাবে না। ওজন কমানো থেকে শুরু করে ডায়াবেটিস সব রোগেরই সমাধান রয়েছে মেথিতে। জানেন কি? সুস্থতার পাশাপাশি রূপ সৌন্দর্য রক্ষাতেও মেথি অপরিহার্য। জেনে নিন এ কার্যকারিতা সম্পর্কে-

ত্বকের জেল্লা বাড়ায়

মেথির ভিটামিন সি ত্বকের জন্য খুব উপকারি। এক চামচ মেথি বাটা বা মেথি গুঁড়োকে দুধের সঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে সেটিকে ফেসিয়াল মাস্ক হিসেবে ব্যবহার করতে হবে। নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়ে।

ত্বক পরিষ্কার

রাতভর ভিজিয়ে রাখা মেথিদানা পেস্ট করে মিশ্রণ তৈরি করুন। তারপর সেটি ফেসিয়াল মাস্ক হিসেবে মুখের সব অংশে খুব ভাল করে লাগান। মেথিদানা ভেজানো জলটুকু ফেলবেন না। ওতে তুলো ভিজিয়ে ক্লিঞ্জার হিসেবে ব্যবহার করুন। ত্বকের গভীরে ঢুকে ধুলো ময়লা তেল বের করে আনে এই রূপটান। আবার মেথিদানা ভেজানো পানি ফেসিয়াল টোনারের ভূমিকাও পালন করে। বোতলে ভরে রেখে দিন মেথি ভেজানো পানি। তারপর ময়েশ্চারাইজার লাগানোর আগে ওই মিশ্রণ দিয়ে স্কিন টোনিং করে নিন।

স্ক্রাবার ও ময়েশ্চারাইজার হিসেবে

ভেজানো মেথিদানা পেস্ট করে ওই মিশ্রণ দিয়ে স্ক্রাব করলেও ত্বক উজ্জ্বল হয়। মরা কোষ ঝেরে ফেলে এবং বাড়তি তেল মুছে আপনার ত্বককে ঝকঝকে করে মেথির স্ক্রাবার। আবার এই একই মিশ্রণ টক দই এবং মধুর সঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করলে তা ত্বকের জন্য ময়শ্চারাইজার হিসেবে কাজ করবে।

ত্বকের কালচে ভাব দূর করে

মেথির ভিটামিন সি ও ভিটামিন কে ত্বকের দাগছোপ এবং বয়সের রেখা দূর করে। রাতে ভেজানো মেথি দুধের সঙ্গে মিশিয়ে পরের দিন সকালে একটি মিশ্রণ বানান। কিছুক্ষণ রেখে ভাল করে মুখ ধুয়ে নিন। এতে ত্বকের সৌন্দর্য বাড়বে।

ব্রণ কমাতে

জলে মেথিদানা ফোটান অন্তত ১৫ মিনিট ধরে। তারপর ওই পানি ছেঁকে তুলোয় করে মুখে লাগান। রোজ ব্যবহার করলে এর ফলে কমবে অ্যাকনে ও ব্রণর সমস্যা।

আরএম-২০/০৬/১১ (লাইফস্টাইল ডেস্ক)