ভাইকে খুন করে থানায় ফোন

প্রকাশিতঃ জানুয়ারী ২৫, ২০২০ আপডেটঃ ২:২২ অপরাহ্ন

নিজের ভাইকে খুনের অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। ভাইকে গুলি করে হত্যা করে থানায় নিজেই ফোন করে অভিযুক্ত। তবে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছনোর আগেই পালিয়ে যায় সে। ঘটনাটি ভারতের আলিপুরদুয়ারের অরবিন্দ নগরের। ভাইয়ের এ শুটআউটের ঘটনা সিনেমার চিত্রনাট্যকেও যেন হার মানায়। অভিযুক্তকে এখনও গ্রেপ্তার করা যায়নি। তার খোঁজে চলছে তল্লাশি।

আলিপুরদুয়ারের ভোলারডাবরি গ্রামের বাপি পণ্ডিত এবং উত্তর অরবিন্দ নগরের বিপ্লব বসাক সম্পর্কে ভাই হন। জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিনই বিবাদ চলছে তাদের।তবে বৃহস্পতিবার রাতে তা গুরুতর আকার নেয়। বাড়ি ফিরছিলেন আইটিআই পড়ুয়া বাপি পণ্ডিত।

রাস্তা একেবারেই ফাঁকা ছিল। সেই সুযোগে উত্তর অরবিন্দ নগর এলাকায় নিজের বাড়ির সামনে বাপিকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় বিপ্লব বসাক। রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় পড়ে যান বাপি। যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকেন তিনি। তার চিৎকারে স্থানীয়রা জড়ো হয়ে যান। বাপিকে উদ্ধার করে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে চিকিৎসকরা জানান, বাপি মারা গিয়েছেন।

ইতিমধ্যেই আলিপুরদুয়ার থানায় একটি ফোন আসে। ওই ফোনে জানান হয় অরবিন্দ নগর এলাকায় বাপি পণ্ডিত নামে এক যুবক খুন হয়েছেন।পুলিশ সুপার জানান, খুনের পর অভিযুক্ত নিজেই ফোন করে থানায়। সে খুন করেছে বলেও জানায় পুলিশকে। খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশবাহিনী। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়। তবে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। আলিপুরদুয়ার থানার পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

জমিজমা সংক্রান্ত বিবাদের জেরে এই খুন বলে তদন্তকারীদের প্রাথমিক ধারণা। তবে এই ঘটনার নেপথ্যে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এই ঘটনার পর থেকে থমথমে গোটা এলাকা। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এসএইচ-০২/২৫/২০ (অনলাইন ডেস্ক)