নওগাঁয় মাদকাসক্ত ছেলের লাঠির আঘাতে বাবার মৃত্যু

প্রকাশিতঃ জুলাই ২৮, ২০১৯ আপডেটঃ ৮:২৯ অপরাহ্ন

নওগাঁর নিয়ামতপুরে নেশার টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে মাদকাসক্ত ছেলের লাঠির আঘাতে আহত আব্দুল হামিদ (৫০) মারা গেছেন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল থেকে বাড়ি নেয়ার পথে রোববার ভোরে মারা যান তিনি।

এর আগে শনিবার দুপুরে উপজেলার শ্রীমন্তপুর ইউনিয়নের ঝাজিরা গ্রামে ছেলে জহুরুল ইসলামের (২৬) লাঠির আঘাতে গুরুতর আহন হন আব্দুল হামিদ। এ ঘটনায় জহুরুলকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঝাজিরা গ্রামের জহুরুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ধরনের মাদকে আসক্ত। আব্দুল হামিদ কয়েকদিন আগে গরু বিক্রি করে ২২ হাজার টাকা বাড়িতে রাখেন। মাদক সেবনের জন্য শনিবার দুপুরে বাবার কাছে টাকা দাবি করেন জহুরুল ইসলাম। আব্দুল হামিদ টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় দু’জনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে জহুরুল তার বাবার মাথায় লাঠি দিয়ে কয়েকটা আঘাত করেন। আব্দুল হামিদ রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুল হামিদের আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য পরামর্শ দেন। সেখান থেকে আব্দুল হামিদকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পথে রোববার ভোরে মারা যান তিনি।

নিয়ামতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শামসুল আলম শাহ বলেন, ঘাতক ছেলে জহুরুল ইসলামকে নিজ বাড়ি থেকে রোববার দুপুরে আটক করা হয়েছে। এরপর হত্যা মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠানো হয়। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বিএ-১৪/২৭-০৭ (উত্তরাঞ্চল ডেস্ক)