নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কি না এ ব্যাপারে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে: রিজভী

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ৭, ২০১৭ আপডেটঃ ৪:৫৮ অপরাহ্ন

রংপুর সিটি নির্বাচনে সব প্রার্থীর সমান সুযোগ তৈরি হয়নি। ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবে ভোটাররা এখনো ভয়ভীতির মধ্যেই রয়েছেন। নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কি না, এ ব্যাপারে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বৃহস্পতিবার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এ মন্তব্য করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আচরণবিধি লঙ্ঘন করলেও ইসি (নির্বাচন কমিশন) তাঁর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

সেখানে অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনী পরিবেশ এখনো করতে পারেনি ইসি। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের নেতৃত্বে কমিশনের ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিদের মানসিকতা স্বাধীন না হলে কমিশনের আইনি স্বাধীনতা কোনো কাজে আসে না। বিএনপির পক্ষ থেকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরিবেশ তৈরির জোর দাবি জানানো হচ্ছে। একই সঙ্গে বিচারিক ক্ষমতা দিয়ে সেনাবাহিনী মোতায়েনেরও জোর দাবি জানানো হচ্ছে।

আরও খবর: রসিক নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের প্রয়োজন নেই: সিইসি

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ২১ ডিসেম্বর রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে, ১৯৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩৩টিই ঝুঁকিপূর্ণ। ইসি দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে না। আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বারবার আচরণবিধি লঙ্ঘন করলেও ইসি তাঁর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না

ক্ষমতাসীন দলের লোকেরা গোটা এলাকায় ভয়ভীতি ছড়াচ্ছে বলেও প্রার্থীরা অভিযোগ করেছেন। এমনকি ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবে বিএনপি–মনোনীত প্রার্থীকে শুরু থেকে যেভাবে হয়রানি করা হয়েছে, তাও নজিরবিহীন। ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে পেছনের দরজা দিয়ে জেতানোর কোনো চেষ্টা করলে জনগণ সেটির উপযুক্ত জবাব দেবে।

এমও-০৭/০৭-১২ (ন্যাশনাল ডেস্ক)