নাটোরে আ’লীগের সভায় ১৪৪ ধারা

প্রকাশিতঃ জানুয়ারী ১৬, ২০২০ আপডেটঃ ৭:৫৮ অপরাহ্ন

নাটোরের বড়াইগ্রামে একই স্থানে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষ পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেয়ায় সংঘর্ষের আশঙ্কায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার পর থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত জোনাইল ইউনিয়ন এলাকায় সব ধরনের সভা-সমাবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন ইউএনও আনোয়ার পারভেজ।

এ কারণে উভয়পক্ষের কেউই তাদের নির্ধারিত কর্মসূচি পালন করতে পারেনি।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে জোনাইল বাজারে উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য সম্পাদক ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী সমর্থিত পক্ষ জোনাইল ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের উদ্যোগ নেন। সে অনুযায়ী তারা প্রচার -চারণা চালান। একই স্থানে একই সময়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক আবদুল কুদ্দুস এমপি সমর্থিত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর আলোচনা সভার ডাক দেন।

উভয়পক্ষ একই জায়গায় পাল্টাপাল্টি সভা আহ্বান করায় এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়। পরে উপজেলা প্রশাসন সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করে সব রকম সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। এতে উভয় পক্ষের কর্মসূচিই ভণ্ডুল হয়ে যায়।

১৪৪ ধারা জারি প্রসঙ্গে উপজেলা চেয়ারম্যানের সমর্থক জোনাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আযাদ বলেন, আমরা আগে থেকে সম্মেলনের ডাক দিয়ে প্রশাসনকে জানানোসহ এলাকায় প্রচারণা চালিয়েছি। কিন্তু প্রতিপক্ষ গ্রুপ আমাদের সভা বানচাল করতেই পাল্টা কর্মসূচি দিয়ে প্রশাসনের মাধ্যমে ১৪৪ ধারা জারি করিয়েছে।

অপরদিকে এমপি সমর্থিত ইউনিয়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা মুজিববর্ষ পালন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু দলীয় শৃঙ্খলা ভেঙ্গে তারা সেখানে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ডাকায় ১৪৪ ধারা জারি হয়েছে। তবে আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সভা করিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার পারভেজ বলেন, একই স্থানে দুই পক্ষ সভা ডাকায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কায় রাত ১২ পর্যন্ত সব ধরনের সভা-সমাবেশ বন্ধ করে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করাসহ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে বলা হয়েছে।

বিএ-১৫/১৬-০১ (উত্তরাঞ্চল ডেস্ক)