রাজশাহী কোর্ট কলেজের নজির শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগে

প্রকাশিতঃ জানুয়ারী ১৩, ২০২০ আপডেটঃ ৮:৩৭ অপরাহ্ন

নিয়োগ মানেই মোটা অংকের অর্থ লেনদেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠা নিয়োগের বেলায় মোটা ডোনেশন। এইটিই এখন রেওয়াজ।

কিন্তু এই রেওয়াজ বদলে দিয়েছে রাজশাহী কোর্ট মহাবিদ্যালয়। অনার্স পর্যায়ে ইতিহাস, দর্শন, ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগে দুজন করে এবং সমাজ বিজ্ঞান বিভাগে একজন প্রভাষক নিয়োগ নেয়া হয়েছে কলেজটিতে।

আরো তিনজন এমএলএসএস ও একজন অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর নিয়োগ দেয়া হয়েছে। সবগুলো নিয়োগই হয়েছে পুরোপুরি যোগ্যতার ভিত্তিতে।

সোমবার এই নিয়োগের অনুমোদন দেয় কলেজ পরিচালনা কমিটি। বিকেলে কমিটির সভাপতি ও রাজশাহীর জেলা প্রশাসক মোঃ হামিদুল হকের দপ্তরে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভা শেষে জেলা প্রশাসক সাংবাদিকদের বলেন, নিরপেক্ষভাবে বা টাকা ছাড়া আজকাল যে চাকরি হয়, এই বিশ্বাস মানুষের মন থেকে উঠে গেছে। কিন্তু আমরা চেষ্টা করেছি নিরপেক্ষভাবে যোগ্য ১১ জনকে বিভিন্ন পদে নিয়োগ দিতে। আমরা দুর্নীতি মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে চাই, এটি কাজেও প্রমাণ দিতে চাই আমরা।

তিনি যোগ করেন, খারাপ সংবাদগুলো খুব দ্রুতই ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু কিছু ভালো খবরওতো রয়েছে। নিরপেক্ষ প্রক্রিয়ায় যোগ্যতা নিয়োগ পেলেন এটি একটি ভালো খবর।

জেলা প্রশাসক বলেন, কলেজ আধুনিকায়নের জন্য যাবতীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে কলেজে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন, নতুন গ্যারেজ ও বসার বেঞ্চ স্থাপন, খাবার পানির ব্যবস্থা করা হয়েছে। সামনে আরো আধুনিকায়ন পরিকল্পনারও কথা জানান জেলা প্রশাসক।

এসময় তিনি শিক্ষক-কর্মচারীদের উপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনের আহবান জানান।

এর আগে নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের সাথে মতবিনিময় করেন প্রশাসক। এসময় কলেজ অধ্যক্ষ এ.কে.এম কামরুজ্জামানসহ পরিচালনা কমিটির বাকি সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, রাজশাহী কোর্ট কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়, স্নাতক (পাশ) এবং স্নাতক (সম্মান) বিষয়ে ১২টি বিভাগ চালু আছে। কলেজে বর্তমানে অধ্যয়নরত প্রায় ৪০০০ হাজার শিক্ষার্থী।

বিএ-১২/১৩-০১ (নিজস্ব প্রতিবেদক)