পরিবেশবান্ধব এসি তৈরি করলেন কলেজছাত্র শরীফুল

প্রকাশিতঃ জুন ২৩, ২০১৯ আপডেটঃ ৭:০৫ অপরাহ্ন

সাশ্রয়ী এবং সম্পূর্ণ পরিবেশবান্ধব শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র উদ্ভাবনের দাবি করেছেন টাঙ্গাইলের এক কলেজছাত্র। তার নাম শরীফুল ইসলাম এবং তিনি টাঙ্গাইলের সরকারি সা’দত কলেজ থেকে অনার্স চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষা দিয়েছেন।

এমন উদ্ভাবন নিয়ে শনিবার দুপুরে মির্জাপুর প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করেছেন শরীফুল ইসলাম।

সেখানে শরীফুল ইসলাম জানান, ২০১৭ সাল থেকে এমন শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র (এসি) উদ্ভাবনে নিরলস পরিশ্রম করেছেন তিনি।

সেখানে তার উদ্ভাবনী প্রযুক্তির মেধা সত্ত্ব চুরি হয়ে যেতে পারে এমন আশংকা প্রকাশ করে সেটি প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেয়ার কথা বলেন শরীফুল।

এছাড়াও সংবাদ সম্মেলনে এক লিখিত বক্তব্যে শরীফুল ইসলাম দাবি করেন, তার উদ্ভাবিত যন্ত্রটি সাশ্রয়ী এবং সম্পূর্ণ পরিবেশ দূষণমুক্ত। কারণ এই এসির ঠাণ্ডাকরণ প্রক্রিয়ার কাজে সিএফসি গ্যাস ব্যবহৃত হবে না।

এ প্রক্রিয়াটি বিদ্যুৎ বা জ্বালানী সাশ্রয়ী দাবি করে শরীফুল জানান, বর্তমানে এক টন এসিতে বিদ্যুৎ খরচ হয়প্রায় ২ হাজার ওয়াট। আর তার উদ্ভাবিত এই এসিটি মাত্র ১৫০ ওয়াট বিদ্যুতেই চলবে। অর্থাৎ ৯০ ভাগ জ্বালানি সাশ্রয় করবে এই এসি।

এমন এসি উদ্ভাবনের পেছনের কারণ হিসাবে শরীফুল জানান, বর্তমান বাজারে পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর সিএফসি গ্যাস ব্যবহার করে শীতাতপ যন্ত্রসহ বিভিন্ন ঠাণ্ডাকরণ যন্ত্র তৈরি করা হয়। এসব যন্ত্র বায়ুমণ্ডলের ওজন স্তরের ক্ষতি করছে। যা পৃথিবীর বাসিন্দাদের জন্য ভয়াবহ ক্ষতিকর। ওজন স্তরের ক্ষতি হলে পৃথিবীতে সূর্যের অতিবেগুণী রশ্মি চলে আসবে এবং ক্যান্সারসহ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা হ্রাস পাবে এবং চোখে অসময়ে ছানি পড়বে।

তার সিএফসি গ্যাসবিহীন এসি ব্যবহার করলে এ বিষয়টি এড়ানো যাবে বলে দাবি শরীফুলের।

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার বহুরিয়া ইউনিয়নের চান্দুলিয়া গ্রামে বাসিন্দা শরীফুল তার উদ্ভাবিত যন্ত্রটির নাম দিয়েছেন শরীফ পিউর কুলিং টেকনোলজি বা এসপিসিটি।

সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. একাব্বর হোসেন বলেন, শরীফুলের উদ্ভাবিত যন্ত্রের কথা সরকারের উচ্চ পর্যায়ে তুলে ধরতে চেষ্টা করব। এজন্য শরীফুলকে প্রয়োজনীয় সব সহযোগিতা করবেন বলে শরীফুলকে আশ্বস্ত করেন তিনি।

বিএ-১২/২৩-০৬ (আঞ্চলিক ডেস্ক)