জোড়া খুনের দায়ে একজনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিতঃ জুলাই ১৮, ২০১৯ আপডেটঃ ৯:৩২ অপরাহ্ন

সিলেটের গোলাপগঞ্জের চাঞ্চল্যকর জোড়া খুনের মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড ও অপর একজনের তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার বিকেলে সিলেট অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আমিনুল ইসলাম এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামির নাম কামরুল ইসলাম (৩৮)। তিনি গোলাপগঞ্জ উপজেলার মেহেরপুর গ্রামের ফারুক মিয়ার ছেলে। এছাড়া একই গ্রামের মুহিবুর রহমানের ছেলে রানু মিয়াকে তিন বছেরর কারাদণ্ড দেন আদালত।

সিলেট অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পিপি মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মামলার অপর দুই আসামি মনোয়ারা বেগম এবং আয়েশা আক্তারকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন বিচারক।

২০১৫ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি গোলাপগঞ্জের মেহেরপুর গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রুবেল আহমেদ ও ফারুক মিয়ার ওপর হামলা চালান আসামিরা। গুরুতর আহত হয়ে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রুবেল ও ফারুক।

ঘটনার দুই দিন পর নিহতদের বোন নাজিরা বেগম দুই নারীসহ চারজনকে আসামি করে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। থানা পুলিশ ঘটনার দীর্ঘ তদন্ত শেষে ওই বছরের ২০ জুন এজাহারনামীয় চার আসামিকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করে। পরে মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে হত্যাকাণ্ডের ৪ বছর ৪ মাস ৮ দিনের মাথায় এই রায় দেয়া হলো।

বিএ-২২/১৮-০৭ (আঞ্চলিক ডেস্ক)