ডেঙ্গু কেড়ে নিলো শিশু রুশার প্রাণ

প্রকাশিতঃ আগস্ট ১০, ২০১৯ আপডেটঃ ৩:৪৩ অপরাহ্ন

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রন্ত হয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রুশা (১০) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

রুশা ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলার গালুয়ার জীবনদাশপুর গ্রামের রুহুল আমিনের মেয়ে। রুহুল আমিন তার পরিবার নিয়ে ঢাকা বসবাস করেন।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. এস এম বাকীর হোসেন জানান, শুক্রবার রাত ৮টার দিকে রুশাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভর্তির সময় রুশা অজ্ঞান ছিল ও খিঁচুনি হচ্ছিল। নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্র (আইসিইউ) রেখে তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়। সব ধরনের চেষ্টা করেও রুশাকে বাঁচানো যায়নি। সকাল ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

রুশার স্বজনদের বরাত দিয়ে ডা. এস এম বাকীর হোসেন আরও জানান, রুশা ঢাকায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়। তখন ঢাকার এক চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসার পর তাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। গত ৮ আগস্ট ঈদ করতে রুহুল আমিন পরিবারসহ গ্রামের বাড়িতে আসেন। গ্রামের বাড়িতে এসে রুশার আবারও অসুস্থ হয়ে পড়ে। এরপর ৯ আগস্ট বরিশাল নগরীরর রাহাত আনোয়ার নামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সকালে তার মৃত্যু হয়।

পরিচালক ডা. এস এম বাকীর হোসেন বলেন, রুশা ডেঙ্গু জ্বরে আক্রন্ত হওয়ায় পর পুরোপুরি সুস্থ হওয়ার আগেই তাকে নিয়ে তার বাবা-মা গ্রামের বড়িতে এসেছিল। এটা উচিত হয়নি।

এদিকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ১১ দিনের ব্যবধানে চারজন ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় গত ৩০ জুলাই ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও এক রোগীর মৃত্যু হয়।

অন্যদিকে শনিবার সকাল পর্যন্ত মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩৩৯ জন ডেঙ্গু রোগী। এর মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয় ৯৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হওয়া ৯৮ জনের মধ্যে পুরুষ ৫২জন, নারী ২৬ জন ও ২০ জন শিশু।

বিএ-১২/১০-০৮ (আঞ্চলিক ডেস্ক)