টিসিবি’র লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ কেনার পরদিন দোকানে মেয়র আরিফের অভিযান

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ১৯, ২০১৯ আপডেটঃ ৯:২২ অপরাহ্ন

একদিন আগে মূল্যবৃদ্ধির ‘প্রতীকী প্রতিবাদ’ হিসেবে টিসিবি’র লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ সংগ্রহ করেছিলেন সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। এনিয়ে বিভিন্ন মহলে আলোচনা-সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। এ অবস্থায় মঙ্গলবার সকালে সদলবলে নগরীতে পেঁয়াজসহ নিত্যপণ্যের বাজার পরিদর্শনে নামেন মেয়র আরিফ। নগরীর বন্দরবাজারের লালবাজার ও ব্রহ্মময়ী বাজারে পরিদর্শনকালে তিনি ব্যবসায়ীদের নায্যমূল্যে পণ্য বিক্রি না করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন।

এ সময় সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা জসীম উদ্দিন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৩টি মুদি দোকানকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রির দায়ে ইনসাফ গ্রোসারীকে ১০ হাজার, এসএম ট্রেডার্সকে ২০ হাজার ও আনিস মিয়া স্টোরকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এই অভিযানে সিটি করপোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী আলী আকবর, লাইসেন্স কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীরসহ সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানকালে মেয়র আরিফ বলেন, যারা অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ, লবণসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রি করে তারা মানবতার শত্রু। তিনি ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বলেন, নির্ধারিত দামেই পেঁয়াজ বিক্রি করতে হবে। অন্যথায় জরিমানাসহ কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বাজার মনিটরিংয়ের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে জানিয়ে মেয়র বলেন, প্রতিদিন বাজার মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এদিকে নগরীর লালবাজারের আজাদ বোর্ডিং নামের আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগে ৫ নারী ও ৭ পুরুষকে পুলিশে দিয়েছেন মেয়র আরিফ। মঙ্গলবার বেলা ১২ টার দিকে লালাবাজারে তিনি বাজার পরিদর্শনে গেলে ব্যবসায়ীদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাৎক্ষণিকভাবে এই অভিযান চালানো হয়। সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা শাহাব উদ্দিন শিহাব জানিয়েছেন, অভিযানের পর হোটেলটি সিলগালা করে দেওয়া হয়।

এছাড়া লালবাজারের বিভিন্ন মাংসের দোকানে অভিযান চালিয়ে দুটি দোকান থেকে পচা ও বাসি মাংস জব্দ করেন মেয়র আরিফ।

বিএ-২০/১৯-১১ (আঞ্চলিক ডেস্ক)