কাতার ধনী দেশের তকমা হারাচ্ছে!

প্রকাশিতঃ আগস্ট ১২, ২০১৮ আপডেটঃ ১০:৫১ অপরাহ্ন

বিশ্বের ধনী দেশের তালিকায় নিজেদের অবস্থান হারাতে যাচ্ছে মধ্য প্রাচ্যের দেশ কাতার। ওই অবস্থানে কাতারকে সরিয়ে জায়গা করে নিতে যাচ্ছে চীনের ছিটমহল ম্যাকাও।মিডল ইস্ট মিরর।

গত কয়েক বছর ধরেই মধ্যপ্রাচ্যের গ্যাস সমৃদ্ধ দেশ কাতার বিশ্বের সবচেয়ে ধনী দেশের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে।আন্তর্জাতিক মনিটারি ফান্ডের (আইএমএফ) তথ্য অনুযায়ী, এক বছর আগেও কাতারের মাথাপিছু জিডিপি ছিল ১ লাখ ২৭ হাজার ৬শ ডলার।

সে সময় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা লুক্সেমবার্গের জিডিপির পরিমান ছিল ১ লাখ ৪ হাজার ৩ ডলার। সাধারণভাবেই কাতারের অবস্থান বেশ নিরাপদই মনে করা হয়েছিলো।

তবে আইএমএফের পূর্বাভাস অনুযায়ী, সম্প্রতি বৈশ্বিক ক্যাসিনো হাব ম্যাকাউয়ের জিডিপি বেড়ে কাতারের কাছাকাছি চলে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে ২০২০ সালের মধ্যে কাতারকে ছাড়িয়ে যাবে ম্যাকাউ।

সে সময় দেশটির জিডিপি ১ লাখ ৪৩ হাজার ১১৬ ডলার হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর কাতারের জিডিপি হতে পারে ১ লাখ ৩৯ হাজার ১৫১ ডলার। ফলে কাতারকে পেছনে ফেলে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী দেশে পরিণত হবে ম্যাকাও।

অতীতে পর্তুগালের নিয়ন্ত্রণে থাকা চীনের দক্ষীণাঞ্চলে অবস্থিত ম্যাকাউ সাম্প্রতিক সময়ে জুয়ার রাজধানীতে পরিণত হয়েছে। দুই দশক আগে চীনের নিয়ন্ত্রণে ফিরে আসার আগ পর্যন্ত এমন অবস্থাই ছিলো। এটাই চীনের একমাত্র স্থান যেখানে ক্যাসিনো ব্যবসা বৈধ।

উপসাগরীয় দেশ সৌদিআরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন এবং মিসরের নিষেধাজ্ঞার আওতায় থেকে কাতারের অর্থনীতিতে বেশ মন্দা দেখা দেয়। ইতোমধ্যেই দোহার অর্থনীতি আগের অবস্থায় ফিরে আসতে শুরু করেছে। তবে এর অর্থনৈতিক উন্নয়ন বৃদ্ধির গতি বাড়ানোর ক্ষমতা অতীতের মতো হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

এসএইচ-২৩/১২/০৮ (অনলাইন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : ভয়েস বাংলা)