লতিফ সিদ্দিকীর কোনও বাড়ি নেই

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ আপডেটঃ ১:১৭ অপরাহ্ন

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গইল-৪ (কালিহাতী) আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবেন আবদুল লতিফ সিদ্দিকী। তিনি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের একজন সাবেক মন্ত্রী। তিনি টাঙ্গাইল রির্টানিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্রের সঙ্গে তিনি হলফনামা জমা দিয়েছেন।

হলফনামা থেকে জানা যায়, সাবেক এই মন্ত্রীর নামে কোনো বাড়ি, এপার্টমেন্ট, দালাল, দোকান বা বাণিজ্যিক কোনো ভবন নেই। ব্যবসা থেকেও তার বাৎসরিক কোনো আয় নেই। যদিও গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দেয়া হলফনামায় তিনি ব্যবসা থেকে ২ লাখ ১৫ হাজার টাকা আয় করেন বলে উল্লেখ করেছিলেন।

এ ছাড়া শিক্ষকতা, লেখক সম্মানী থেকে লতিফ সিদ্দিকীর বাৎসরিক ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং অন্যান্য (ব্যাংক থেকে প্রাপ্ত সুদ) ১৪ হাজার ৬৩৯ টাকা আয় করেন বলে হলফনামায় উল্লেখ করেছেন। তার নিজ নামে নগদ টাকা রয়েছে ৫ লাখ ৩৪ হাজার ৩৭৭ টাকা। তবে তার স্ত্রী এবং ছেলের নামে কোনো নগদ টাকা নেই। ব্যাংক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমাকৃত অর্থের পরিমাণ ৯ লাখ ২৫ হাজার ৮৪৯ টাকা।

এমপি কোটা থেকে তার একটি টয়োটা জিপ গাড়ির মূল্য ৬৫ লাখ টাকা। তার স্ত্রীর ২০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার রয়েছে। যার মূল্য ১০ হাজার টাকা (১৯৭৩ সালে বৈবাহিক সূত্রে প্রাপ্ত উপহার)। ইলেকট্রনিক সামগ্রীর মধ্যে ফ্রিজ এবং টিভি রয়েছে। যার মূল্য ৭৫ হাজার টাকা। আসবাবপত্রের মধ্যে রয়েছে, সোফা একটি, খাট ২টি ড্রেসিং ও ডাইনিং টেবিল। যার মূল্য ৫০ হাজার টাকা।

এছাড়া নিজ নামে ৩৯ শতাংশ জমি রয়েছে। যার মূল্য ৩২ হাজার টাকা (১৯৯০ সাল)। স্ত্রীর নামে ৫ দশমিক ২৮ একর জমি রয়েছে। যার মূল্য ২ কোটি টাকা। অকৃষি জমি এবং অর্জনকালীন ১ একর ৮৭ শতাংশ জমি রয়েছে। যার মূল্য ৬৫ লাখ টাকা। লতিফ সিদ্দিকীর কোনো দালান, আবাসিক ও বাণিজ্যিক ভবন না থাকলেও তার স্ত্রীর একটি রয়েছে এবং অপর একটি নির্মাণাধীন।

এসএইচ-০৩/০৬/১২ (অনলাইন ডেস্ক)