বিজেপি নেত্রীর বললেন মুসলিম নারীদের গণধর্ষণ করতে

প্রকাশিতঃ জুলাই ১, ২০১৯ আপডেটঃ ৪:১৪ অপরাহ্ন

ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) মহিলা মোর্চা শাখার এক নেত্রীকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। দেশটির মুসলিম নারীদের গণধর্ষণ করতে হিন্দু যুবকদের প্রতি আহ্বান জানানোর পর তাকে বহিষ্কার করা হয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে উত্তর প্রদেশের রামকুলার বিজেপি মহিলা মোর্চার নেত্রী সুনিতা সিং গওর বলেন, হিন্দু ভাইদের ১০ জনের একটি গ্রুপ তৈরি করে রাস্তায় প্রকাশ্যে মুসলিম মা ও বোনদের গণধর্ষণ করা উচিত।

তিনি আরো লিখেন, হিন্দুদের উচিত মুসলিমদের বাড়িতে প্রবেশ করে নারীদের ধর্ষণ করা।

‘মুসলিমদের জন্য শুধুমাত্র একটি সমাধান আছে। সেটি হলো হিন্দু ভাইরা ১০ জনের একটি দল গঠন করবেন এবং রাস্তায় প্রকাশ্যে মুসলিম মা-বোনদের গণধর্ষণ করবেন। পরে বাজারের মাঝে তাদের ঝুলিয়ে রাখবেন, যাতে অন্যরা দেখতে পারেন।’

শুক্রবার সুনিতা সিংয়ের এই ফেসবুক স্ট্যাটাসের স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়ে যাওয়ার তার মুছে ফেলেন তিনি। টুইটারে ভাইরাল হওয়া সেই স্ক্রিনশট নজরে আসে দেশটির বিজেপি মহিলা মোর্চার কেন্দ্রীয় সভাপতি বিজয়া রাহাতকরের।

পরে কেন্দ্রীয় এই নেত্রী বলেন, আমি আশ্বস্ত করছি যে, বিজেপি মহিলা মোর্চা কোনো ধরনের হিংসাত্মক মন্তব্য মেনে নেবে না। টুইটারে স্ক্রিনশট পোস্টকারীকে রাহাতকর বলেন, আপনার টুইটের আগেই ওই ভদ্র মহিলাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

দলীয় নীতিমালা বিরোধী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে সুনিতা সিংকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে উত্তরপ্রদেশ বিজেপি মহিলা মোর্চা।

এসএইচ-০৯/০১/১৯ (অনলাইন ডেস্ক)