ঢাকা দিল ১৮৪ রান রংপুরের সামনে

প্রকাশিতঃ জানুয়ারী ১১, ২০১৯ আপডেটঃ ৪:২৫ অপরাহ্ন

ঢাকা ডায়নামাইটসের প্রথম দুই ম্যাচেই ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন আফগান ওপেনার হযরতউল্লাহ জাজাই। কিন্তু তিনি আজ মাত্র ১ রান করেই আউট। সুনিল নারাইন ও রনি তালুকদারও দ্রুত ফিরে যাওয়ায় ঢাকা ৩৩ রানেই হারিয়ে ফেলে ৩ উইকেট। সেখান থেকে ৬৪ রানে ৪ উইকেট।

ঢাকা শিবিরে নিশ্চিতভাবেই তখন শঙ্কার মেঘ। কিন্তু সেই মেঘ দূর করতেও খুব সময় নেননি কাইরন পোলার্ড। ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান যেন ব্যাটে শান দিয়েই নামলেন মাঠে। উইকেটে গিয়েই তুললেন ঝড়। সেই ঝড়ে শুরুতে ধুকতে ঢাকা শেষ পযর্ন্ত গড়েছে ৯ উইকেটে ১৮৩ রানের পুঁজি।

টস জিতে টুর্নামেন্টের রীতি মেনেই প্রথমে ফিল্ডিং নেন রংপুর রাইডার্স অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার সেই সিদ্ধান্তকে নিজের প্রথম এবং ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই সঠিক প্রমাণ করেন সোহাগ গাজী। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে তিনি উপড়ে ফেলেন আগের দুই ম্যাচে ঢাকার জয়ের নায়ক হযরতউল্লাহ জাজাইয়ের স্টাম্প।

দলীয় ১৯ রানের মাথায় অন্য ওপেনার সুনিল নারাইনকেও ফিরিয়ে দেন মাশরাফি। দ্রুত ২ উইকেট হারানোর পরও চালিয়ে খেলতে শুরু করেন রনি তালুকদার। ১ ছক্কা ও ২ চারে তিনি মাত্র ৭ বলেই করে ফেলেন ১৮ রান। মিরপুরে তখন রনি ঝড়েরই আভাস। কিন্তু ঠিক ওখানেই রনি ঝড় থামিয়ে দেন সোহাগ গাজী। রনি ফিরে যান ৮ বলে ১৮ রান করে। ঢাকার রান তখন ৩ উইকেটে ৩৩।

এরপর দলকে ৬৪ রানে রেখে মিজানুর রহমানও আউট। ঢাকা টেনে-টুনে দেড়শ পেরোতে পারবে কিনা, সেই শঙ্কাই তখন মিরপুরে। কিন্তু পোলার্ড নেমেই মুছে দিতে শুরু করলেন সেই শঙ্কা। একের পর এক বিগ শট দ্রুত ফুলিয়ে ফাপিয়ে তুললেন ঢাকার রানের চাকা।

দলকে নিরাপদে টেনে তোলার লক্ষ্যে মাত্র ২১ বলেই তুলে নিলেন এবারের টুর্নামেন্টে নিজের প্রথম ফিফটি। এবারের বিপিএলে যা দ্রুতততম ফিফটির রেকর্ড। ফিফটির পর পোলার্ডের ব্যাটে যখন আরও বিধ্বংসী হয়ে উঠার আভাস, তখনই তাকে ফিরিয়ে দেন ফরাসি ক্রিকেটার বেনি হাওয়েল। তার আগেই অবশ্য ২৬ বলে ৬২ রান করে ফেলেছেন পোলার্ড। যে ইনিংসটিতে তিনি ৪টি ছক্কা ও ৫টি চার মেরেছেন।

সাকিবের সঙ্গে পঞ্চম উইকেট জুটিতে মাত্র ৬.৫ ওভারেই গড়েন ৭৬ রানের পার্টনারশিপ। অধিনায়ক সাকিব পোলার্ডকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে গেছেন। পোলার্ডের বিদায়ের পর উইকেটে আসেন তারই স্বদেশি আন্দ্রে রাসেল। তিনি ১৩ বলে করেছেন ২৩ রান। দলের চাহিদা মেনে খেলঅ সাকিব ৩৭ বলে করেছেন ৩৮ রান। পোলার্ড উইকেটে থাকা অবস্থায় ঢাকা ২০০ পেরোবে বলেই মনে হচ্ছিল। কিন্তু তার বিদায়ের পর শেষ দিকে নিয়মিত উইকেট হারানোয় ঢাকাকে থামতে হয়েছে ১৮৩ রানে।

উইকেট সংখ্যার দিক থেকে রংপুরের সবচেয়ে সফল বোলার শফিউল ইসলাম। তিনি ৩৫ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট। সোহাগ গাজী ও বেনি হাওয়েল নিয়েছেন দুটি করে উইকেট। একটি করে উইকেট নিয়েছেন মাশরাফি ও ফরহাদ রেজা।

এসএইচ-০৮/১১/১৯ (স্পোর্টস ডেস্ক)