সাইফুদ্দিনের বিশ্বকাপ স্বপ্ন শঙ্কায়

প্রকাশিতঃ মে ১৫, ২০১৯ আপডেটঃ ৪:৫২ অপরাহ্ন

বাংলাদেশের তরুণ অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। বিশ্বকাপের প্রাথমিক স্কোয়াডে জায়গা পেয়েছেন তিনি। ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে তার মতো পেস অলরাউন্ডার বাংলাদেশের জন্য তুরুপের তাস হতে পারে। কিন্তু ওয়ালটন ত্রিদেশীয় সিরিজে পিঠের ইনজুরিতে পড়ায় তার বিশ্বকাপ স্বপ্নকে শঙ্কার মধ্যে ঠেলে দিয়েছে।

পিঠের ইনজুরির কারণে সোমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলা হয়নি সাইফুদ্দিনের। ম্যাচের সময় তাকে দেখা গেছে ফিজিও শিহান চন্দ্রমোহনের সঙ্গে সময় কাটাতে। ২৩ মে এর আগে সাইফুদ্দিন পুরোপুরি সুস্থ্য হয়ে উঠতে পারেন কিনা দেখার বিষয়।

সাইফুদ্দিনের ইনজুরির বিষয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেছেন, ‘সাইফুদ্দিন তার পিঠে কিছুটা ব্যথা অনুভব করছে। সে কারণে আমরা তাকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলানোর ঝুঁকি নিইনি। তার পরিবর্তে আবু জায়েদ রাহীকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে।’

সাইফুদ্দিনের ইনজুরির কারণে অবশ্য ওয়ানডেতে অভিষেক হয়ে গেছে আবু জায়েদের। তবে অভিষেকটা অবশ্য রাঙাতে পারেননি রাহী। ৯ ওভার বল করে ৫৬ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন তিনি। ব্যাট হাতে মাঠে নামার সুযোগ পাননি। অবশ্য রাহীও রয়েছেন বিশ্বকাপের স্কোয়াডে। কিন্তু তার পরিবর্তে তাসকিন আহমেদকে রাখা হতে পারে চূড়ান্ত স্কোয়াডে। এমনটাই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। তবে এ বিষয়ে নিশ্চিত করে এখনো কিছু জানায়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

এ বিষয়ে বিসিবি সভাপতি বলেছিলেন, ‘এটা সত্য যে তাসকিন ইনজুরিতে থাকায় রাহীকে নেওয়া হয়েছিল। এখন তাসকিন যদি পুরোপুরি ফিট থাকে তাহলে আমরা তাকেই বিবেচনা করব। তবে রাহীকেও আমরা সুযোগ দিতে চাই। নিজেকে প্রমাণ করার যথেষ্ট সুযোগ না দিয়ে রাহীকে বাদ দিলে সেটা অন্যায় হবে।’

ইনজুরির কারণে তাসকিন আহমেদকে বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত প্রাথমিক দলে রাখা হয়নি। তবে আয়ারল্যান্ডে চলমান ওয়ালটন ত্রিদেশীয় সিরিজের স্কোয়াডে তাকে রাখা হয়। এখন নির্বাচকরা ২৩ মে এর মধ্যে তাদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিবে।’

২০১৫ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠা বাংলাদেশ এবার বিশ্বকাপের আগে পাকিস্তান ও ভারতের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। ২৬ মে পাকিস্তানের বিপক্ষে ও ২৮ মে ভারতের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে টাইগাররা। ২ জুন বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।

এসএইচ-১৭/১৫/১৯ (স্পোর্টস ডেস্ক)